দুর্নীতির কারণে আমাদের অর্জনগুলো যেন নষ্ট হয়ে না যায় - প্রধানমন্ত্রী

দুর্নীতির কারণে আমাদের অর্জনগুলো যেন নষ্ট হয়ে না যায় - প্রধানমন্ত্রী

প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা সরকারী কর্মচারীদের দুর্নীতির বিষয়ে হুঁশিয়ার করে দিয়ে বলেছেন, দুর্নীতির কারণে আমাদের অর্জনগুলো যেন নষ্ট হয়ে না যায়। আমরা এত খেটে, সারাদিন এত কাজের পর যদি দুর্নীতির কারণে সব অর্জন নষ্ট হয়ে যায়, সেটা হবে খুবই দুঃখজনক। এটা কোনভাবেই সহ্য করা হবে না। এ ব্যাপারে সবার সজাগ ও দায়িত্বশীল হতে হবে। আর যে ঘুষ নেবে সে-ই কেবল অপরাধী নয়, যে ঘুষ দেবে সেও অপরাধী। উন্নয়নের গতি অব্যাহত রাখতে দুর্নীতি প্রতিরোধ করার আহ্বান জানান তিনি।


শনিবার প্রধানমন্ত্রী তার কার্যালয়ে বার্ষিক কর্মসম্পাদন চুক্তি (এপিএ) স্বাক্ষর অনুষ্ঠানে দুর্নীতি প্রতিরোধে সরকারের উর্ধতন কর্মকর্তাদের যথাযথ পদক্ষেপ গ্রহণের আহ্বান জানিয়ে বলেন, এ বিষয়ে সকলকে দায়িত্বশীল হওয়ার পাশাপাশি যথাযথভাবে দায়িত্ব পালনে আন্তরিক হতে হবে। দুর্নীতির কারণে আমাদের উন্নয়নটা যেন বাধাগ্রস্ত না হয়, সে বিষয়ে সকলকে খেয়াল রাখতে হবে। আপনাদেরই (সরকারের জ্যেষ্ঠ কর্মকর্তা) নির্দেশনা দিতে হবে একেবারে নিম্নস্তর পর্যন্ত যারা কাজ করে তাদের। যাতে আমাদের এত কষ্টের অর্জনগুলো দুর্নীতির কারণে নষ্ট হয়ে না যায়। পরিকল্পিত উন্নয়নের ওপর গুরুত্ব দিয়ে প্রধানমন্ত্রী বলেন, মানুষের আর্থিক সচ্ছলতা বাড়ার সঙ্গে সঙ্গে সবার এমন একটা প্রবণতা হয়ে গেছে, যার যেখানে জমি আছে সেখানেই একটা দালানকোঠা তুলে ফেলছে। অনেক সময় কৃষিজমির ওপরও দালানকোঠা হচ্ছে। এই জায়গায় মনে হয় একটা নীতিমালা এবং একটা নিয়ন্ত্রণ থাকা দরকার, একটা মাস্টার প্ল্যান থাকা দরকার। তিনি বলেন, আমরা কীভাবে আমাদের কৃষিজমিগুলো রক্ষা করব, এটাও আমাদের দেখা উচিত। আমরা পরিবেশ রক্ষা করব, প্রতিবেশ রক্ষা করব, পাশাপাশি উন্নয়নটা যাতে হয়, আর সেই উন্নয়নটা যেন একটু পরিকল্পিতভাবে হয়।


প্রধানমন্ত্রী বলেন, আধুনিক প্রযুক্তি ব্যবহারের মাধ্যমে একেবারে তৃণমূল পর্যায়ের যে মানুষ তাদেরও সকল নাগরিক সুবিধাটা আমরা দিতে চাই। যাতে করে তাদের কাজ খোঁজার জন্য আর গ্রাম থেকে শহরে আসতে না হয়। নিজের গ্রামেই সব ধরনের আধুনিক সুযোগ-সুবিধা তারা পেতে পারে। তিনি বলেন, মানুষের আর্থিক স্বাচ্ছন্দ্য বাড়ার ফলে এবং যেহেতু আমরা ঘোষণা দিয়েছি ‘আমার গ্রাম আমার শহর’ তাই যত্রতত্র দালানকোঠা ও স্থাপনা তৈরি হওয়ায় কৃষিজমি কমে যাওয়ার একটা আশঙ্কা দেখা দিয়েছে। এ বিষয়ে মাস্টার প্ল্যান থাকা এবং তা যথাযথভাবে কার্যকরের ওপর গুরুত্বারোপ করে তিনি বলেন, এটা বোধ হয় আমাদের একটু দেখা উচিত যে, কিভাবে আমাদের কৃষিজমিগুলো আমরা রক্ষা করব। পরিবেশ এবং প্রতিবেশ রক্ষা করে উন্নয়ন যেন পরিকল্পিতভাবে করা যায়।


শিল্পায়নের জন্য সারাদেশে এক শ’ বিশেষ অর্থনৈতিক অঞ্চল প্রতিষ্ঠার উদ্যোগ তুলে ধরে শেখ হাসিনা বলেন, যত্রতত্র যেখানে সেখানে ঘর-বাড়ি এবং কলকারখানা এভাবে যদি হতে থাকে তাহলে যেমন আমাদের আবাদি জমিও নষ্ট হবে তেমনি গ্রামীণ জনগোষ্ঠীর জন্য নাগরিক সুবিধা দেয়াটাও একটু কঠিন হয়ে যাবে। তিনি এজন্য মানুষকে বোঝানোর এবং নির্দিষ্ট স্থানে স্থাপনা নির্মাণ করলে তারা যে সুবিধাগুলো পাবেন সে সম্পর্কে তাদের অবহিতকরণের জন্য প্রশাসনের কর্মকর্তাদের প্রতি আহ্বান জানান।


সন্ত্রাস ও জঙ্গীবাদকে একটি বৈশ্বিক সমস্যা আখ্যায়িত করে প্রধানমন্ত্রী এই ব্যাধি নির্মূলে সরকারের সাফল্য তুলে ধরেন এবং এই ধারা অব্যাহত রাখার, যাতে করে কোনভাবেই সন্ত্রাস ও জঙ্গীবাদ মাথাচাড়া দিয়ে উঠতে না পারে, সে বিষয়ে সকলকে সজাগ থাকারও আহ্বান জানান। ক্ষুধা ও দারিদ্র্যমুক্ত বাংলাদেশ গড়ার প্রত্যয় ব্যক্ত করে প্রধানমন্ত্রী বলেন, ২০২১ সালে আমরা স্বাধীনতার সুবর্ণজয়ন্তী পালন করব। সেই সঙ্গে ২০২০ সালের ১৭ মার্চ থেকে ২০২১ সালের ২৬ মার্চ পর্যন্ত সময়কে আমরা ‘মুজিব বর্ষ’ হিসেবে ঘোষণা দিয়েছি।


তিনি বলেন, এর মধ্যে বাংলাদেশে একটা ভিক্ষুকও থাকবে না। একটা মানুষও গৃহহারা থাকবে না। একটা মানুষও না খেয়ে কষ্ট পাবে না। অন্তত মানুষের মৌলিক চাহিদাগুলো আমরা পূরণ করব। তাদের জীবনের ন্যূনতম চাহিদা, সেটা যেন আমরা পূরণ করতে পারি, সে লক্ষ্য সামনে রেখে সমস্ত পরিকল্পনা, সমস্ত কাজ করতে হবে। আধুনিক প্রযুক্তি ব্যবহারের মাধ্যমে তৃণমূল পর্যায়ে নাগরিক সুবিধা পৌঁছে দেয়ার কথাও বলেন শেখ হাসিনা।


সরকার প্রধান বলেন, গ্রামের জনগণকে যেন শহরে ভিড় করতে না হয়। নিজের গ্রামেই তারা যেন সব ধরনের আধুনিক সুযোগ-সুবিধা ভোগ করতে পারে, তা নিশ্চিত করতে হবে। তিনি বলেন, প্রশাসনে কর্মকর্তাদের আন্তরিকতার সঙ্গে কাজ করার ফলেই দেশ আজ এগিয়ে যাচ্ছে। দেশের মানুষ আপনাদের কাজের সুফল পাচ্ছে। শেখ হাসিনা বলেন, কর্মকর্তাদের কাজের ফলেই আমাদের প্রবৃদ্ধি বৃদ্ধি পেয়েছে, মাথা পিছু আয় বেড়েছে। দেশ এগিয়ে যাওয়া এবং মানুষের মাথাপিছু আয় বেড়ে যাওয়ার ফলেই আজ আমরা ৫ লাখ ২৩ হাজার কোটি টাকার বাজেট দিতে পেরেছি। তিনি বলেন, দীর্ঘ পরিকল্পনা ছাড়া দেশকে এগিয়ে নেয়া সম্ভব নয়। এ কারণে আমরা সব সময় দীর্ঘমেয়াদী পরিকল্পনা নিয়ে কাজ করছি। আগামী ’২১ এবং ’৪১ সালকে সামনে রেখে আমরা পরিকল্পনা গ্রহণ করেছি। পরিকল্পনাগুলো বাস্তবায়িত হলে ২০৪১ সালের মধ্যে বাংলাদেশ হবে দক্ষিণ এশিয়ার উন্নত একটি দেশ।


চীনের প্রবৃদ্ধির প্রসঙ্গ টেনে প্রধানমন্ত্রী বলেন, চীনের থেকেও আমাদের প্রবৃদ্ধি বেশি। আমাদের প্রবৃদ্ধি ইতোমধ্যে ৮ দশমিক ১ ভাগে পৌঁছেছে। এ অর্থবছরের শেষ নাগাদ ৮ দশমিক ২ শতাংশ প্রবৃদ্ধি অর্জনই আমাদের লক্ষ্য। আর এটা আমরা করতে পারব বলেই বিশ্বাস করি। দুর্যোগ ব্যবস্থাপনায় সরকারের সাফল্য তুলে ধরে দেশের বিভিন্ন স্থানে বন্যা প্রসঙ্গে সরকারের পর্যাপ্ত প্রস্তুতি থাকার আভাস দেন প্রধানমন্ত্রী।


প্রাকৃতিক দুর্যোগ আমাদের দেশে আছেই এবং ভৌগোলিক কারণেই এটা হয়ে থাকে উল্লেখ করে তিনি বলেন, এখন সারাদেশে বন্যা চলছে। এ বন্যা পাহাড়ী, হাওর বা একটু উঁচু অঞ্চলে আছে। এ পানিটা ধীরগতিতে নেমে আসতে আসতে নি¤œ অঞ্চলগুলো প্লাবিত হবে। এ জন্য আপনারা সাবধান থাকবেন। তিনি প্রশাসনের সঙ্গে সংশ্লিষ্টদের সতর্ক থাকার আহ্বান জানিয়ে বলেন, বন্যায় মানুষের যেন প্রাণহানি না ঘটে এবং খাদ্যের জন্য মানুষ যেন কষ্ট না পায়। তৃণমূল পর্যায় পর্যন্ত এ বিষয়ে নির্দেশনা দেবেন।


দাফতরিক কাজে গতিশীলতা আনয়নে তার সরকারের বিভিন্ন উদ্যোগ তুলে ধরে প্রধানমন্ত্রী বলেন, আজকে কর্মসম্পাদন চুক্তির ফলে দ্রুত দেশটা উন্নয়নের দিকে এগিয়ে যাচ্ছে। আমি মনে করি, লাল ফিতার দৌরাত্ম্য কমেছে এবং আমাদের কাজে গতিশীলতা বেড়েছে, দক্ষতা বেড়েছে। সেই সঙ্গে কাজের আগ্রহটাও বেড়েছে। এ প্রসঙ্গে তিনি আরও বলেন, এখন তো ডিজিটাল যুগ। তার সঙ্গে তাল মিলিয়ে আমাদের চলতে হবে। কিভাবে, কোন্ কাজটা করলে দেশটা আরও উন্নত হতে পারে বা দ্রুত আমরা কাজটি করে লক্ষ্য বাস্তবায়ন করতে পারব, সেটা আপনাদের চিন্তা করতে হবে। প্রধানমন্ত্রী ২০১৭-১৮ অর্থবছরে বার্ষিক কর্মসম্পাদন চুক্তির বাস্তবায়নে সফলতার স্বীকৃতি হিসেবে সম্মাননাপ্রাপ্ত ১০টি মন্ত্রণালয় ও বিভাগকে অভিনন্দন জানান।


অনুষ্ঠানে প্রধানমন্ত্রীর উপস্থিতিতে প্রত্যেক মন্ত্রণালয় ও বিভাগের পক্ষে জ্যেষ্ঠ সচিব ও সচিবরা ২০১৯-২০ অর্থবছরের কর্মসম্পাদন চুক্তিতে সই করেন। পরে তারা প্রধানমন্ত্রীর হাতে এই চুক্তিপত্র তুলে দেন। অনুষ্ঠানে সংশ্লিষ্ট মন্ত্রণালয়, বিভাগ এবং দফতরের সিনিয়র সচিব এবং সচিববৃন্দ একযোগে বার্ষিক কর্মসম্পাদন চুক্তিতে স্বাক্ষর করে একে একে প্রধানমন্ত্রীর হাতে তা তুলে দেন। বার্ষিক কর্মসম্পাদন চুক্তি সম্পাদনের সাফল্যের স্বীকৃতিস্বরূপ অনুষ্ঠানে ১০টি মন্ত্রণালয় ও বিভাগকে সম্মাননাপত্র এবং ক্রেস্ট প্রদান করা হয়। এর মধ্যে ২০১৭-১৮ সালের বার্ষিক কর্মসংস্থান চুক্তি সম্পাদনে সাফল্যের বিবেচনায় বিদ্যুত বিভাগ প্রথম, বাস্তবায়ন, পরীবিক্ষণ ও মূল্যায়ন বিভাগ দ্বিতীয়, জ্বালানি এবং খনিজ সম্পদ বিভাগ তৃতীয় স্থান অর্জন করায় অনুষ্ঠানে সংশ্লিষ্ট বিভাগের সচিবদের হাতে প্রধানমন্ত্রী ক্রেস্ট এবং সম্মাননাপত্র তুলে দেন।


শুদ্ধাচার চর্চা ও দুর্নীতি প্রতিরোধের মাধ্যমে রাষ্ট্র ও সমাজে সুশাসন প্রতিষ্ঠা করার জন্য এবং সরকারী কর্মচারীদের শুদ্ধাচার চর্চায় উৎসাহ প্রদানে সরকার প্রদত্ত ২০১৭-১৮ অর্থবছরে শুদ্ধাচার পুরস্কার লাভ করেছে তথ্য ও যোগাযোগ প্রযুক্তি বিভাগ। তথ্য মন্ত্রণালয়ের সচিব মোঃ আব্দুল মালেক বার্ষিক কর্মসম্পাদন চুক্তিতে তার মন্ত্রণালয়ের সাফল্যের স্বীকৃতিস্বরূপ অনুষ্ঠানে প্রধানমন্ত্রীর কাছ থেকে সম্মাননাপত্র গ্রহণ করেন। বিজ্ঞান ও প্রযুক্তি মন্ত্রণালয়, মুক্তিযুদ্ধ বিষয়ক মন্ত্রলালয়, মহিলা ও শিশু বিষয়ক মন্ত্রণালয়, সুরক্ষা বিভাগ এবং কৃষি মন্ত্রণালয়ের সংশ্লিষ্ট সচিবগণও প্রধানমন্ত্রীর নিকট থেকে এপিএ’র সাফল্যের স্বীকৃতিস্বরূপ সম্মাননাপত্র গ্রহণ করেন।


অনুষ্ঠানে জনপ্রশাসন প্রতিমন্ত্রী ফরহাদ হোসেন, মন্ত্রিপরিষদ সচিব মোঃ শফিউল আলম, মুখ্য সচিব মোঃ নজিবুর রহমান এবং বিদ্যুত বিভাগের সিনিয়র সচিব ড. আহমেদ কায়কাউস বক্তৃতা করেন। এ সময় প্রধানমন্ত্রীর কার্যালয়ের এসডিজি বিষয়ক মুখ্য সমন্বয়ক মোঃ আবুল কালাম আজাদ মঞ্চে উপস্থিত ছিলেন। মন্ত্রিপরিষদের সদস্যবৃন্দ, প্রধানমন্ত্রীর উপদেষ্টাবৃন্দ, বিভিন্ন সিনিয়র সচিব এবং সচিববৃন্দ, বিভিন্ন বিভাগ এবং দফতরের প্রধানগণ, বিভিন্ন দেশের কূটনীতিক এবং আমন্ত্রিত অতিথিবৃন্দ অনুষ্ঠানে উপস্থিত ছিলেন। অনুষ্ঠানের শুরুতে সরকারের উন্নয়ন কর্মকা-ের ওপর একটি ভিডিও ডকুমেন্টারি প্রদর্শিত হয়।


প্রসঙ্গত, বার্ষিক কর্মসম্পাদন চুক্তি (এপিএ) মূলত প্রধানমন্ত্রীর প্রতিনিধি হিসেবে মন্ত্রিপরিষদ সচিব এবং সংশ্লিষ্ট মন্ত্রণালয়ের দায়িত্বপ্রাপ্ত মন্ত্রীর প্রতিনিধি হিসেবে সংশ্লিষ্ট মন্ত্রণালয়/বিভাগের সচিবের মধ্যে স্বাক্ষরিত একটি সমঝোতা দলিল। একইভাবে মন্ত্রণালয়/বিভাগের সচিবগণ সংযুক্ত দফতর/সংস্থাসমূহের সঙ্গে এবং দফতর/সংস্থাসমূহের প্রধানগণ মাঠ পর্যায়ের সঙ্গে চুক্তি স্বাক্ষর করেন। এই চুক্তিতে সংশ্লিষ্ট মন্ত্রণালয়/বিভাগের কৌশলগত উদ্দেশ্যসমূহ, এ সকল উদ্দেশ্য অর্জনের জন্য গৃহীত কার্যক্রমসমূহ এবং এ কার্যক্রমের ফল পরিমাপের জন্য কর্মসম্পাদন সূচক ও লক্ষ্যমাত্রাসমূহ বর্ণনা করা হয়েছে। সংশ্লিষ্ট অর্থবছর সমাপ্ত হওয়ার পর ওই বছরের চুক্তিতে নির্ধারিত লক্ষ্যমাত্রাসমূহের বিপরীতে সংশ্লিষ্ট মন্ত্রণালয়/বিভাগের প্রকৃত অর্জন মূল্যায়ন করা হয়। ২০১৪-১৫ অর্থবছরে বাংলাদেশে প্রথম বার্ষিক কর্মসম্পাদন চুক্তি বা এপিএ প্রবর্তন করা হয়। এবার ষষ্ঠ বছরের মতো এ চুক্তি স্বাক্ষর হয়। জনকণ্ঠ।

More News

ক্ষুদ্র ঋণের কাঙ্ক্ষিত সুফল মানুষ পায়নি : প্রধানমন্ত্রী ক্ষুদ্র ঋণের কাঙ্ক্ষিত সুফল মানুষ পায়নি : প্রধানমন্ত্রী

প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা দারিদ্র্য বিমোচনের ক্ষেত্রে ক্ষুদ্র ঋণের ব্যর্থতার কথা তুলে ধরে বলেছেন, কেউ কেউ এর প্রবক্তা হিসেবে নাম-যশ কামালেও বাস্তবতা হচ্ছে যে দেশের জনগণ এর অতটা সুফল পায়নি।


তিনি বলেন, ‘এক সময় আমরা দেখেছি ক্ষুদ্র ঋণ নি........ বিস্তারিত

সব অপরাধীদের বিরুদ্ধে সরকার কঠোর অবস্থানে রয়েছে : সংসদে প্রধানমন্ত্রী সব অপরাধীদের বিরুদ্ধে সরকার কঠোর অবস্থানে রয়েছে : সংসদে প্রধানমন্ত্রী

প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা বলেছেন, দুর্নীতিসহ সব ধরনের অপরাধীদের বিরুদ্ধে সরকার কঠোর অবস্থানে রয়েছে।


তিনি বলেন, ‘আওয়ামী লীগ সরকার দেশে আইনের শাসন নিশ্চিত করে উন্ননের ধারাবাহিকতা অক্ষুন্ন রাখার লক্ষ্যে নিরলসভাবে কাজ করে যাচ্ছে। দø........ বিস্তারিত

ব্রাহ্মণবাড়িয়ায় তূর্ণা -ঊদয়ন সংঘর্ষ, নিহত ১৫ আহত শতাধিক ব্রাহ্মণবাড়িয়ায় তূর্ণা -ঊদয়ন সংঘর্ষ, নিহত ১৫ আহত শতাধিক


ব্রাহ্মণবাড়িয়ার কবসায় দুই ট্রেনের মুখোমুখি সংঘর্ষের ঘটনায় শেষ খবর পাওয়া পর্যন্ত ১৫ জনের লাশ উদ্ধার করা হয়েছে। এই সংখ্যা আরো বাড়তে পারে বলে ধারণা করা হচ্ছে। আহত হয়েছেন শতাধিক যাত্রী। ঘটনা তদন্তে তিন সদস্যের তদন্ত কমিটি গঠন কর&#........ বিস্তারিত

দূর্বল হয়ে পড়ছে 'বুলবুল', বন্দরসমূহে ৩ নং সতর্ক সংকেত দূর্বল হয়ে পড়ছে 'বুলবুল', বন্দরসমূহে ৩ নং সতর্ক সংকেত

বাংলাদেশের উপকূলে প্রবাহিত হওয়া ঘুর্ণিঝড় ‘বুলবুল’ বাগেরহাট, বরিশাল ও পটুয়াখালী অঞ্চলে অবস্থান করে স্থল নিন্মচাপে পরিনত হয়েছে।  এটি আরও সামান ̈ পূর্ব-উত্তরপূর্ব দিকে অগ্রসর হয়ে আজ বিকাল ৩:০০ টায় বরিশাল, পটুয়াখালী, ভোলা অঞ্চলে ........ বিস্তারিত

খুনীদের জন্য এত মায়া কান্না কেন খুনীদের জন্য এত মায়া কান্না কেন

জেলহত্যা দিবসের আলোচনায় প্রধানমন্ত্রীর জিজ্ঞাসা ; ১৫ আগস্ট ও ৩ নবেম্বর হত্যাকান্ডের নেপথ্যের ষড়যন্ত্রকারীরাও একদিন ধরা পড়বে, রহস্যও উদ্ঘাটিত হবে


জনকণ্ঠ :: প্রধানমন্ত্রী ও আওয়ামী লীগ সভানেত্রী শেখ হাসিনা কারাবন্দী খালেদা জিয়ার না........ বিস্তারিত

জেএসসি ও জেডিসি পরীক্ষা শুরু জেএসসি ও জেডিসি পরীক্ষা শুরু

কোন ধরনের অভিযোগ ছাড়াই শান্তিপূর্ণভাবে দেশজুড়ে শুরু হয়েছে অষ্টম শ্রেণীর জুনিয়র স্কুল সার্টিফিকেট (জেএসসি) ও জুনিয়র দাখিল সার্টিফিকেট (জেডিসি) পরীক্ষা। শনিবার পরীক্ষার প্রথম দিনে ছিল না প্রশ্নপত্র ফাঁস, কিংবা ভুল প্রশ্ন বিতরণসহ বড় ধর&........ বিস্তারিত

অপরাধ করে কেউ পার পাবে না, ধরা হবে সবাইকে - প্রধানমন্ত্রী অপরাধ করে কেউ পার পাবে না, ধরা হবে সবাইকে - প্রধানমন্ত্রী

জনকণ্ঠ :: প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা চলমান দুর্নীতিবিরোধী অভিযানকে ‘আইওয়াশ’ বলে বিএনপির অভিযোগ সরাসরি নাকচ করে দিয়ে তাদের উদ্দেশে পাল্টা প্রশ্ন ছুড়ে দিয়ে বলেছেন, যারা (বিএনপি) আপাদমস্তক দুর্নীতিবাজ, যাদের বিরুদ্ধে খুন-দুর্নীতি-অগ্নিস&#........ বিস্তারিত

ন্যাম সম্মেলনে যোগদান শেষে ফিরেছেন প্রধানমন্ত্রী ন্যাম সম্মেলনে যোগদান শেষে ফিরেছেন প্রধানমন্ত্রী

প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা ১৮তম জোট নিরপেক্ষ আন্দোলনের (ন্যাম) সম্মেলনে যোগ দিতে আজারবাইজানে চার দিনের সরকারী সফর শেষে রবিবার সন্ধ্যায় দেশে ফিরেছেন।


প্রধানমন্ত্রী ও তার সফরসঙ্গীদের বহনকারী বিমান বাংলাদেশ এয়ারলাইন্সের একটি বিশেষ........ বিস্তারিত

ন্যাম সম্মেলনে যোগ দিয়েছেন প্রধানমন্ত্রী ন্যাম সম্মেলনে যোগ দিয়েছেন প্রধানমন্ত্রী

উন্নয়নশীল দেশগুলোর জোট নিরপেক্ষ আন্দোলন-ন্যামের অষ্টাদশ শীর্ষ সম্মেলনে যোগ দিয়েছেন বাংলাদেশের প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা।


শুক্রবার সকালে আজারবাইজানের বাকু কংগ্রেস সেন্টারে আনুষ্ঠানিকভাবে এ সম্মেলনের উদ্বোধন হয়।


১২০টি উ÷........ বিস্তারিত

আরও ১টি সিটি কর্পোরেশন, ১টি পৌরসভা ও ৭টি থানার অনুমোদন আরও ১টি সিটি কর্পোরেশন, ১টি পৌরসভা ও ৭টি থানার অনুমোদন

প্রশাসনিক পুনর্বিন্যাস সংক্রান্ত জাতীয় বাস্তবায়ন কমিটি (নিকার) সভায় শর্ত সাপেক্ষে ফরিদপুর সিটি কর্পোরেশন (এফসিসি), সাতটি নতুন পুলিশ থানা এবং একটি পৌরসভা গঠনের অনুমোদন দেয়া হয়েছে।


প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার সভাপতিত্বে আজ ২১ অক্টো........ বিস্তারিত

সবচেয়ে সুবিধাজনক অবস্থায় বাংলাদেশের অর্থনীতি সবচেয়ে সুবিধাজনক অবস্থায় বাংলাদেশের অর্থনীতি

বাংলাদেশের অর্থনীতির সবচেয়ে সুন্দর সময় অতিক্রম করছে বলে জানিয়েছেন অর্থমন্ত্রী আ হ ম মুস্তফা কামাল। তিনি বলেছেন,বৈশ্বিক অর্থনৈতিক অবস্থার প্রেক্ষাপটে এখন সবচেয়ে সুবিধাজনক অবস্থানে রয়েছে বাংলাদেশ।


শুক্রবার ঢাকায় প্রাপ্ত এক সংব&........ বিস্তারিত

র্যা গিংয়ের শিকার হলে নালিশ করুন, বিচার হবে : আইনমন্ত্রী র্যা গিংয়ের শিকার হলে নালিশ করুন, বিচার হবে : আইনমন্ত্রী

শিক্ষা প্রতিষ্ঠানগুলোতে র‌্যাগিংয়ের নামে নির্যাতন শিকার হয়ে কেউ নালিশ জানালে প্রচলিত আইনেই তার বিচারের আশ্বাস দিয়েছেন আইনমন্ত্রী আনিসুল হক।


বুয়েটছাত্র আবরার ফাহাদকে নির্যাতন চালিয়ে হত্যার প্রেক্ষাপটে বুধবার সচিবালয়ে ইউরো÷........ বিস্তারিত

আরও দু'টি মেট্রোরেল রাজধানীতে আরও দু'টি মেট্রোরেল রাজধানীতে

রাজধানীতে যানজট নিরসনসহ গতিশীলতা বাড়াতে আরও দুটি মেট্রোরেল হচ্ছে। মঙ্গলবার ৯৩ হাজার ৮০০ কোটি টাকা ব্যয়ে প্রকল্পটি অনুমোদন করেছে জাতীয় অর্থনৈতিক পরিষদের নির্বাহী কমিটির (একনেক)।


ক্ষমতা ভোগ করার জন্য নয়, মানুষের সেবা করার ব্রত নিয়েই কাজ করে যাচ্ছেন বলে জানিয়েছেন প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা।
তিনি বলেন, ক্ষমতা ভোগ করার জন্য নয়, মানুষের সেবা করার ব্রত নিয়েই কাজ করে যাচ্ছ........ বিস্তারিত

কাল রাজশাহী যাচ্ছেন প্রধানমন্ত্রী কাল রাজশাহী যাচ্ছেন প্রধানমন্ত্রী

প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা রবিবার রাজশাহী যাচ্ছেন। এদিন তিনি রাজশাহীর চারঘাট উপজেলার সারদায় বাংলাদেশ পুলিশ একাডেমিতে সহকারী পুলিশ সুপারদের প্রশিক্ষণ সমাপনী কুচকাওয়াজ অনুষ্ঠানে অভিবাদন গ্রহণ এবং প্যারেড পরিদর্শন করবেন। পুলিশ এক........ বিস্তারিত

এসএমই খাতে ঋণ ও অন্যান্য সুবিধা বাড়ছে এসএমই খাতে ঋণ ও অন্যান্য সুবিধা বাড়ছে

জনকণ্ঠ :: ক্ষুদ্র ও মাঝারি শিল্প (এসএমই) খাতের উদ্যোক্তাদের সুবিধা বাড়াতে একটি নীতিমালা অনুমোদন দিয়েছে মন্ত্রিসভা। এতে এসএমই খাতের উদ্যোক্তাদের ঋণ ও অন্যান্য সুবিধা বৃদ্ধি পাবে। এছাড়া সভায় ‘বাংলাদেশ অভ্যন্তরীণ নৌপরিবহন কর্পোরেশন ........ বিস্তারিত

আমরা কৃষিকেও গুরুত্ব দেই, আবার শিল্পকেও গুরুত্ব দেই - শেখ হাসিনা আমরা কৃষিকেও গুরুত্ব দেই, আবার শিল্পকেও গুরুত্ব দেই - শেখ হাসিনা

বিজিএমইএ পরিচালনা পর্ষদের নবনির্বাচিত সদস্যদের উদ্দেশ্যে প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা বলেন, আমাদের কিছু লোক আছে অনবরত আমাদের বিরুদ্ধে প্রপাগান্ডা চালায়। এটা আপনাদের অ্যাড্রেস করতে হবে। যার জন্য ক্ষতিগ্রস্ত আপনারা হন।


আজ বুধবার প্........ বিস্তারিত

বেপরোয়া রোহিঙ্গারা, প্রশাসনিক এ্যাকশন শুরু বেপরোয়া রোহিঙ্গারা, প্রশাসনিক এ্যাকশন শুরু

জনকণ্ঠ :: মিয়ানমার থেকে পালিয়ে আসা রোহিঙ্গারা কক্সবাজারের উখিয়া-টেকনাফ অঞ্চলের জন্য মারাত্মক হুমকি হয়ে আছে। দীর্ঘ দুই বছর সময়ে ওরা হয়ে উঠেছে বেপরোয়া। রোহিঙ্গা সন্ত্রাসীদের অপতৎপরতা ও কিছু এনজিওর ইন্ধনে এ রোহিঙ্গারা এখন সবকিছুতে ফ্র&#........ বিস্তারিত

স্বায়ত্তশাসিত প্রতিষ্ঠানের উদ্বৃত্ত অর্থ সরকারী কোষাগারে জমা দিতে হবে স্বায়ত্তশাসিত প্রতিষ্ঠানের উদ্বৃত্ত অর্থ সরকারী কোষাগারে জমা দিতে হবে

স্বায়ত্তশাসিত, আধা-স্বায়ত্তশাসিত, সংবিধিবদ্ধ সরকারি কর্তৃপক্ষ, পাবলিক নন-ফাইন্যান্সিয়াল কর্পোরেশনসহ ৬৮টি সরকারি স্বায়ত্তশাসিত প্রতিষ্ঠানের বিভিন্ন ব্যাংকে স্থায়ী আমানতের পরিমাণ ২ লাখ ১২ হাজার ১০০ কোটি টাকা। এ প্র........ বিস্তারিত

'বাকশাল হলে বাংলাদেশ আগেই বিশ্ব দরবারে মর্যাদার আসনে থাকতো' - প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা 'বাকশাল হলে বাংলাদেশ আগেই বিশ্ব দরবারে মর্যাদার আসনে থাকতো' - প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা

বঙ্গবন্ধুর বাকশাল কার্যকর করা গেলে বাংলাদেশ অনেক আগেই বিশ্ব দরবারে মর্যাদার আসনে থাকতো বলে মন্তব্য করেছেন প্রধানমন্ত্রী ও আওয়ামী লীগ সভাপতি শেখ হাসিনা।


শনিবার গণভবনে শোকের মাস আগস্টের শেষ দিনে ছাত্রলীগের নেতা-কর্মীদের উদ্দেশ্য........ বিস্তারিত

অপকর্মে লিপ্ত থাকায় রোহিঙ্গা ক্যাম্প থেকে ৪১ এনজিও প্রত্যাহার অপকর্মে লিপ্ত থাকায় রোহিঙ্গা ক্যাম্প থেকে ৪১ এনজিও প্রত্যাহার

পররাষ্ট্রমন্ত্রী ড. এ কে আব্দুল মোমেন বলেছেন, রোহিঙ্গা সমস্যা সৃষ্টির পর ১৩৯টি এনজিও রোহিঙ্গা ক্যাম্পে তাদের কার্যক্রম শুরু করেছিল। এদের মধ্যে অপকর্মে লিপ্ত থাকায় তালিকা করে ৪১টি এনজিওকে ওই এলাকার সব ধরনের কার্যক্রম থেকে প্রত্যাহা........ বিস্তারিত

জটিল হয়ে উঠছে রোহিঙ্গা সমস্যা জটিল হয়ে উঠছে রোহিঙ্গা সমস্যা

স্বদেশ রায় :: রোহিঙ্গা ঢল যখন নামে, তখন নানান লেখায় নানাভাবেই লিখি—রোহিঙ্গা সমস্যা সহজে ও শিগগিরই সমাধান হবে না। তবে বাংলাদেশের রোহিঙ্গাদের আশ্রয় দেওয়ার কোনও বিকল্প ছিল না। কারণ, বাংলাদেশ যদি তাদের ঢুকতে না দিতো, তাহলে বাংলাদেশও মানবাধ........ বিস্তারিত

দেশের প্রতিটি গ্রামকে পরিকল্পিতভাবে সাজাতে হবে - প্রধানমন্ত্রী দেশের প্রতিটি গ্রামকে পরিকল্পিতভাবে সাজাতে হবে - প্রধানমন্ত্রী

বঙ্গবন্ধুর স্বপ্নের সোনার বাংলাদেশ গড়তে জীববৈচিত্র্য রক্ষা ও নাগরিক সুবিধা নিশ্চিত করে প্রতিটি গ্রামকে পরিকল্পিতভাবে সাজানোর নির্দেশনা দিয়েছেন প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা।


বুধবার সকালে প্রধানমন্ত্রী তার কার্যালয়ে এক অনুষ্ঠা÷........ বিস্তারিত

৫ হাজার ৪৯৪ কোটি টাকার ১২টি প্রকল্প একনেকে অনুমোদন ৫ হাজার ৪৯৪ কোটি টাকার ১২টি প্রকল্প একনেকে অনুমোদন

জাতীয় অর্থনৈতিক পরিষদের নির্বাহী কমিটির (একনেক) সভায় প্রায় ৫ হাজার ৪৯৪ কোটি ৪ লাখ টাকা ব্যয়ে ১২টি প্রকল্প অনুমোদন দেয়া হয়েছে। এর মধ্যে সরকার দেবে ৫ হাজার ৪২৬ কোটি ৪ লাখ এবং বিদেশি অনুদান ৭৮ কোটি টাকা।


আজ মঙ্গলবার শেরেবাংলা নগরে জাতীয় অ&#........ বিস্তারিত

বিমান দুর্ঘটনায় মারা গেলে ক্ষতিপূরণ দেড় কোটি টাকা বিমান দুর্ঘটনায় মারা গেলে ক্ষতিপূরণ দেড় কোটি টাকা

বিমান যাত্রীদের ক্ষতিপূরণের পরিমাণ বাড়িয়ে ‘আকাশ পথে পরিবহন (মন্ট্রিল কনভেনশন, ১৯৯৯) আইন, ২০১৯’ এর খসড়া নীতিগত অনুমোদন দিয়েছে মন্ত্রিসভা।


খসড়া আইন অনুযায়ী বিমান দুর্ঘটনায় কেউ মারা গেলে তার পরিবারকে এক কোটি ৪০ লাখ টাকা ক্ষতিপূরণ দিতে........ বিস্তারিত

আইভি রহমানের মৃত্যুবার্ষিকীর মিলাদ মাহফিলে অংশ নিলেন প্রধানমন্ত্রী আইভি রহমানের মৃত্যুবার্ষিকীর মিলাদ মাহফিলে অংশ নিলেন প্রধানমন্ত্রী

২০০৪ সালের একুশে আগস্ট গ্রেনেড হামলায় নিহত আওয়ামী লীগ নেতা আইভি রহমানের মৃত্যুবার্ষিকীতে তার স্বজনদের কাছে গিয়ে মিলাদ ও দোয়া মাহফিলে অংশ নিয়েছেন প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা।


শনিবার আসরের নামাজের পর গুলশানে আইভি কনকর্ডে এ মিলাদ ও দো........ বিস্তারিত

বেপরোয়া রোহিঙ্গারা, পুলিশের সাথে বন্দুকযুদ্ধে নিহত ২ বেপরোয়া রোহিঙ্গারা, পুলিশের সাথে বন্দুকযুদ্ধে নিহত ২

জনকণ্ঠ :: রোহিঙ্গা প্রত্যাবাসন দু’দফায় থমকে যাওযায় উখিয়া-টেকনাফের স্থানীয়রা চরম ক্ষুব্ধ। অন্যদিকে আশ্রিত রোহিঙ্গাদের মাঝে সৃষ্টি হয়েছে উল্লাস। মিয়ানমারের মৃত্যুকূপ থেকে পালিয়ে এসে বাংলাদেশে আশ্রয় পেয়ে এসব রোহিঙ্গা এখন ফ্রি স্টাই........ বিস্তারিত

২ বছরে রোহিঙ্গাদের জন্য বাংলাদেশের ব্যয় ৭২ হাজার কোটি টাকা! ২ বছরে রোহিঙ্গাদের জন্য বাংলাদেশের ব্যয় ৭২ হাজার কোটি টাকা!

বাংলা ট্রিবিউন :: জাতিগত নিধনের শিকার হয়ে বাংলাদেশে আশ্রয় নেওয়া মিয়ানমারের বস্তুচ্যুত নাগরিকের সংখ্যা এখন ১১ লাখের বেশি। বাংলাদেশের পররাষ্ট্রমন্ত্রী একে আবদুল মোমেন জানিয়েছেন, এই বিপুল রোহিঙ্গা জনগোষ্ঠীর জন্য গত দুই বছরে বাংলাদেশ ........ বিস্তারিত

আবারও ভেস্তে গেল রোহিঙ্গাদের প্রত্যাবাসন প্রক্রিয়া আবারও ভেস্তে গেল রোহিঙ্গাদের প্রত্যাবাসন প্রক্রিয়া

জনকণ্ঠ :: দ্বিতীয় দফায়ও রোহিঙ্গা প্রত্যাবাসন কাজ শুরু করা গেল না। বিভিন্ন মহলের উৎস্যুক দৃষ্টি ছিল। সরকারের ছিল সব প্রস্তুতি। প্রত্যাবাসন কাজে নিয়োজিত সব সংস্থার কর্মকর্তা কর্মচারীদের ছিল দীর্ঘ অপেক্ষা। চলছিল ক্ষণ গণনা। মিয়ানমার প........ বিস্তারিত

গ্রেনেড হামলায় খালেদার মদদ ছিল,মৃত্যু ভয়ে আমি কখনই ভীত ছিলাম না, এখনও নই গ্রেনেড হামলায় খালেদার মদদ ছিল,মৃত্যু ভয়ে আমি কখনই ভীত ছিলাম না, এখনও নই

জনকণ্ঠ :: প্রধানমন্ত্রী ও আওয়ামী লীগ সভাপতি শেখ হাসিনা ভয়াল ২১ আগস্ট গ্রেনেড হামলার জন্য তৎকালীন ক্ষমতাসীন বিএনপি-জামায়াত জোট সরকারকে আবারও দায়ী করে বলেছেন, প্রকাশ্য দিবালোকে তৎকালীন ক্ষমতাসীন বিএনপি-জামায়াত জোট সরকারের প্রত্যক্ষ ম&#........ বিস্তারিত

নারকীয় গ্রেনেড হামলার ১৫তম বার্ষিকী আজ, আওয়ামীলীগকে নেতৃত্বশূন্য করতেই এ হামলা নারকীয় গ্রেনেড হামলার ১৫তম বার্ষিকী আজ, আওয়ামীলীগকে নেতৃত্বশূন্য করতেই এ হামলা

জনকণ্ঠ :: মূলত প্রধান রাজনৈতিক প্রতিপক্ষ আওয়ামী লীগকে নেতৃত্বশূন্য করতেই ২১ আগস্টের গ্রেনেড হামলা চালানো হয়। আর এ হামলার পরিকল্পনা এবং বাস্তবায়নের পেছনে ছিলেন তৎকালীন ক্ষমতাসীন বিএনপি-জামায়াত জোটের প্রভাবশালী রাজনীতিবিদ, দেশের এক........ বিস্তারিত

২২ আগস্ট থেকে রোহিঙ্গা প্রত্যাবাসন শুরু ২২ আগস্ট থেকে রোহিঙ্গা প্রত্যাবাসন শুরু

মিয়ানমারের সদিচ্ছায় আগামী ২২ আগস্ট থেকে রোহিঙ্গা প্রত্যাবাসন শুরু হতে যাচ্ছে। এদিন ৩ হাজার ৪৫০ জন রোহিঙ্গাকে ফিরিয়ে নিতে স্থল ও নৌ পথে মিয়ানমার সরকার প্রস্তুতি গ্রহণ করেছে বলে জানা গেছে। গত জুলাই মাসে দেশটির পররাষ্ট্র মন্ত&........ বিস্তারিত

জাতিসংঘ সদর দপ্তরে প্রথমবারের মতো পালিত হলো জাতীয় শোক দিবস জাতিসংঘ সদর দপ্তরে প্রথমবারের মতো পালিত হলো জাতীয় শোক দিবস

প্রথমবারের মতো জাতিসংঘ সদর দপ্তরে যথাযোগ্য মর্যাদা ও ভাবগম্ভীর পরিবেশে পালিত হয়েছে জাতির পিতা বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের শাহাদাৎ বার্ষিকী এবং জাতীয় শোক দিবস। জাতিসংঘে বাংলাদেশ মিশনের উদ্যোগে এই আলোচনা অনুষ্ঠানে অংশ নেন কয়েকটি........ বিস্তারিত

ডেঙ্গুর কার্যকর ওষুধ ছিটাতে স্বাস্থ্যমন্ত্রী ও দুই মেয়রকে প্রধানমন্ত্রীর নির্দেশ , নাগরিকদেরকে তাদের বাড়িঘর পরিষ্কার পরিচ্ছন্ন রাখার আহ্বানও জানিয়েছেন তিনি ডেঙ্গুর কার্যকর ওষুধ ছিটাতে স্বাস্থ্যমন্ত্রী ও দুই মেয়রকে প্রধানমন্ত্রীর নির্দেশ , নাগরিকদেরকে তাদের বাড়িঘর পরিষ্কার পরিচ্ছন্ন রাখার আহ্বানও জানিয়েছেন তিনি

প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা এডিস মশাবাহিত ডেঙ্গু জ্বর মোকাবেলায় কার্যকর ওষুধ ছিটাতে ঢাকার দুই সিটি মেয়র ও স্বাস্থ্যমন্ত্রীকে নির্দেশ দিয়েছেন। জানিয়েছেন আওয়ামী লীগ সাধারণ সম্পাদক ও সেতুমন্ত্রী ওবায়দুল কাদের। তিনি বলেন, প্রবল বন্যা ও........ বিস্তারিত

টানা বৃষ্টির সম্ভাবনা, সমুদ্রবন্দরসমূহে ৩ নং সতর্ক সংকেত টানা বৃষ্টির সম্ভাবনা, সমুদ্রবন্দরসমূহে ৩ নং সতর্ক সংকেত

মৌসুমী বায়ু সক্রিয় থাকায় রাজধানীসহ প্রায় সারাদেশে বৃষ্টিপাত হচ্ছে এবং আগামী তিনদিন তা অব্যাহত থাকতে পারে। এদিকে দক্ষিণপশ্চিম বঙ্গোপসাগর এবং তৎসংলগ্ন এলাকায় লঘুচাপ সৃষ্টি হওয়ায় দেশের চার সমুদ্রবন্দরে তিন নম্বর স্থানীয় সতর্ক সংকে........ বিস্তারিত

প্রধানমন্ত্রীর চোখে অস্ত্রোপচার প্রধানমন্ত্রীর চোখে অস্ত্রোপচার

লন্ডনের একটি হাসপাতালে চোখের অপারেশন করিয়েছেন প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা। বর্তমানে যুক্তরাজ্যে সরকারি সফরে রয়েছেন তিনি। খবর বাসস’র।


প্রধানমন্ত্রীর প্রেস সচিব ইহসানুল করিম মঙ্গলবার লন্ডন থেকে টেলিফোনে বাসসকে জানান, সোমবার দুপু&#........ বিস্তারিত

ছেলেধরা সন্দেহে ১৮ জনকে গণপিটুনি, সারাদেশে আতঙ্ক ছেলেধরা সন্দেহে ১৮ জনকে গণপিটুনি, সারাদেশে আতঙ্ক

জনকণ্ঠ :: ছেলেধরা’ সন্দেহে ‘গণপিটুনি’র ঘটনা সারাদেশে ছড়িয়ে পড়ছে। একই সঙ্গে বিরাজ করছে আশঙ্কা। এই বাতিক থেকে রেহাই পেতে সংবাদ সম্মেলন করে এক পুলিশ কর্মকর্তা জনগণকে গুজবে কান না দিয়ে সচেতন হতে আহ্বান জানিয়েছেন। এই সন্দেহ বাতিকের অসহায় শ........ বিস্তারিত

গুজব-গণপিটুনি বন্ধে পুলিশ সদর দপ্তরের বার্তা গুজব-গণপিটুনি বন্ধে পুলিশ সদর দপ্তরের বার্তা

ছেলেধরা গুজবে গণপিটুনির ঘটনা যেন আর না ঘটে সেজন্য সারা দেশের পুলিশ ইউনিটগুলোতে বার্তা পাঠানো হয়েছে।


আজ সোমবার পুলিশ সদর দপ্তর থেকে সহকারী মহাপরিদর্শক (এআইজি- অপারেশন্স) সাঈদ তারিকুল হাসানের স্বাক্ষর করা এ বার্তা পাঠানো হয়।


বার্&........ বিস্তারিত