আওয়ামী লীগের এবারের সম্মেলন ঘিরে যে দুটি বিষয় বেশি গুরুত্ব রাখে

আওয়ামী লীগের এবারের সম্মেলন ঘিরে যে দুটি বিষয় বেশি গুরুত্ব রাখে

স্বদেশ রায় :: আওয়ামী লীগের সম্মেলন শুধু মাত্র আওয়ামী লীগের রাজনীতিতে গুরুত্ব রাখে না, জাতীয় রাজনীতিসহ দেশের ইতিহাসেও এর গুরুত্ব অপরিসীম। কারণ, ইতিহাসের নানান বাঁক পেরিয়ে এখন বাংলাদেশের জনগণের ভেতর দিয়ে উঠে আসা রাজনৈতিক দল একটাই, সেটা আওয়ামী লীগ– যাদের রাষ্ট্র ক্ষমতায় যাবার ও থাকার সক্ষমতা আছে। এছাড়া জনগণের ভেতর দিয়ে উঠে আসা মুসলিম লীগ অনেক আগেই নিশ্চিহ্ন হয়ে গেছে। নিশ্চিহ্ন হয়ে গেছে আওয়ামী লীগ থেকে বেরিয়ে গিয়ে গড়ে তোলা রাজনৈতিক দল ন্যাপ । আবার ওই ন্যাপ থেকে বেরিয়ে গিয়ে গড়ে তোলা রাজনৈতিক দল মোজাফফর ন্যাপ এখন নামমাত্র টিকে আছে। সর্বোপরি কমিউনিস্ট পার্টি এখন অনেক দুর্বল একটি রাজনৈতিক দল। আওয়ামী লীগ ছাড়া বাকি বড় যে রাজনৈতিক দল আছে– বাংলাদেশ ন্যাশনালিস্ট পার্টি ( বিএনপি) ও জাতীয় পার্টি এ দুটোই সামরিক সরকারের সৃষ্টি। দুটো দল যে দুই সামরিক সরকারের হাত ধরে জন্ম নিয়েছে এ দুই সামরিক সরকারই বাংলাদেশের স্রষ্টা জাতির জনক বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের হত্যার বেনিফিসারি ও সঙ্গে সঙ্গে মুক্তিযুদ্ধের মাধ্যমে অর্জিত বাংলাদেশের সংবিধানকে পরিবর্তন করে পাকিস্তানি ধারায় নিয়ে যাবার কাজ করেছে। মূলত তাদের মূল চরিত্র বাংলাদেশের মুক্তিযুদ্ধের চেতনার বিপরীতে। তাই এমতাবস্থায় শত দোষ ত্রুটি সত্ত্বেও একমাত্র আওয়ামী লীগই বাংলাদেশের জনগণের ভেতর দিয়ে উঠে আসা, স্বাধীনতার চেতনার ধারার রাজনৈতিক দল– যারা রাষ্ট্র ক্ষমতায় যেতে পারে। তাই স্বাভাবিকই তাদের নেতৃত্বের ওপর দেশের অনেক কিছু নির্ভর করে।


আওয়ামী লীগ যে সময়ে এবারের সম্মেলন করতে যাচ্ছে এই সময়ে বাংলাদেশে ও পৃথিবীতে অনেক পরিবর্তন হয়েছে। যেমন বাংলাদেশের সবক্ষেত্রে এখন তরুণরা সামনে চলে এসেছে। আবার বাংলাদেশের মানুষের গড় আয়ু বেড়েছে। শুধু গড় আয়ু বাড়েনি, সঙ্গে সঙ্গে সুস্বাস্থ্যও নিশ্চিত হয়েছে। যার ফলে সিনিয়র সিটিজেনরাও কাজের ক্ষেত্রে অনেক বেশি সক্ষম। সিনিয়র সিটিজেনরাও এখন অনেক কাজে তরুণদের সঙ্গে সমান তালে করতে পারেন। তাই শুধু অভিজ্ঞতা শেয়ার নয়, মাঠ পর্যায়েও তাদের পক্ষে এখনও কাজ করা সম্ভব। পাশাপাশি তরুণ নেতারা সবসময়ই তরুণদের চিন্তার সঙ্গে থাকেন এটাও সত্য। এর সঙ্গে সঙ্গে বেড়েছে সারা দেশের যোগাযোগ ব্যবস্থা। এই যোগাযোগ ব্যবস্থা বাড়ার ফলে কেন্দ্রের সঙ্গে জেলা ও উপজেলা পর্যায়ের রাজনীতির দূরত্ব কমে গেছে। তেমনিভাবে তথ্য প্রযুক্তি ও গ্লোবালাইজেশানের ফলে পৃথিবীর সঙ্গেও কমেছে বাংলাদেশের দূরত্ব। অন্যদিকে গত এগারো বছর শেখ হাসিনার নেতৃত্বের ফলে সারা পৃথিবীতে অর্থনীতি ও রাজনীতির ক্ষেত্রে বাংলাদেশ একটি আলাদা অবস্থান তৈরি করেছে। এই অবস্থান এমন একটি সময়ে তৈরি হয়েছে যে সময়ে পৃথিবীতে বড় ধরনের একটা অর্থনৈতিক ও রাজনৈতিক পরিবর্তন হচ্ছে। অর্থাৎ পৃথিবীর রাজনীতি ও অর্থনীতি ধীরে ধীরে পশ্চিম থেকে মুখ ফিরিয়ে পূবের দিকে অর্থাৎ এশিয়ার দিকে আসছে। ধরে নেয়া হচ্ছে আগামী পৃথিবী এশিয়ার। আগামীর এই এশিয়ার পৃথিবীতে পুরানো এশিয়ান অর্থনৈতিক শক্তি জাপানের বাইরে নতুন দুটি অর্থনৈতিক শক্তির উত্থান এখন বাস্তবতা। এর ভেতর বড় অর্থনৈতিক শক্তি হিসেবে পৃথিবীতে আত্মপ্রকাশ করতে যাচ্ছে চায়না আর তার সঙ্গে আরেকটি স্থিতিশীল অর্থনীতি হিসেবে এগিয়ে আসছে ভারত। এশিয়ার এই তিন বড় অর্থনৈতিক শক্তির চরিত্র ভিন্ন ভিন্ন। জাপান এশিয়ান অর্থনৈতিক শক্তি হলেও সে পশ্চিমা শক্তি আমেরিকার সঙ্গে গাঁটছড়া বাধা। চিন শুধুমাত্র অর্থনৈতিক শক্তি হিসেবে আত্মপ্রকাশ করছিলো এতদিন– বর্তমানে সে সামরিক শক্তির দিকেও কিছুটা ঝুঁকেছে। ভারতের অর্থনৈতিক শক্তি চিনের মত বড় নয় তবে তার সামাজিক শক্তি অনেক বড়। ব্রিটিশ শাসনের উত্তরাধিকার হিসেবে শুধু নয় অতীতের ধারাবাহিকতায় ভারত বুদ্ধিবৃত্তির চর্চাকে গুরুত্ব দেয় বেশি। অন্যদিকে পৃথিবীর সবথেকে বড় সংসদীয় গণতন্ত্রের দেশ ভারত। এই তিন ধরনের চরিত্র নিয়ে এশিয়ার অর্থনৈতিক শক্তিগুলো এগুচ্ছে। এখনও অনেকে মনে করছে চিন শেষ অবধি আমেরিকার স্থান নেবে। কিন্তু পৃথিবীর অর্থনীতি ও রাজনীতির গতি-প্রকৃতি বলে দিচ্ছে আগামী পৃথিবী এমন এককেন্দ্রিক আর হবে না। অর্থনীতির বিকাশের ও অর্থনৈতিক প্রয়োজনীয়তার কারণে বহুকেন্দ্রিক হবে।


এমন একটি সময়ে চিন ও ভারতের মাঝখানে বাংলাদেশের অর্থনীতির বিকাশ হচ্ছে। অর্থনীতির বিকাশের ফলে এর রাজনৈতিক গুরুত্ব বেড়েছে অনেক বেশি। এবং শেখ হাসিনা দেশকে যেখানে পৌঁছে দিয়েছেন, তাতে এর গুরুত্ব প্রতি মুহূর্তে বাড়তে থাকবে। তাই আওয়ামী লীগের আগামী নেতৃত্বকে বেশ একটি জটিল সময়ের নেতৃত্ব দিতে হবে। বলা যেতে পারে এটা আওয়ামী লীগের রাজনীতির আরো একটি বাঁক পরিবর্তনের সময়। আওয়ামী লীগ যাত্রা শুরু করেছিলো পাকিস্তানি কাঠামোতে একটি প্রাদেশিক দল হিসেবে। ষাটের দশকে এসে আওয়ামী লীগের নেতৃত্ব বঙ্গবন্ধু নিজ হাতে নিয়ে এর নেতৃত্বে ধীরে ধীরে তাদেরকে নিয়ে এলেন যারা একটি স্বাধীনতা যুদ্ধের নেতৃত্ব দিতে পারবে। এর পরে স্বাধীন দেশে বঙ্গবন্ধু আওয়ামী লীগের পাশাপাশি সেই সব যুবকদের নিয়ে যুবলীগ গড়ে তোলার নির্দেশ দেন যারা মুক্তি সংগ্রামী ছিলেন। এই যুবলীগ থেকেই নেতারা ১৯৭৫ এর ১৫ অগাস্টের পরে ধীরে ধীরে আওয়ামী লীগের নেতৃত্বে চলে আসে। এর সঙ্গে সঙ্গে ১৯৮১ সালে আওয়ামী লীগের ভার নেবার পর থেকে শেখ হাসিনা দলকে এক দিকে যেমন গণতন্ত্র পুনরুদ্ধার আন্দোলনের উপযুক্ত আওয়ামী লীগ তৈরি করেন তেমনি তিনি ধীরে ধীরে দেশ গঠনের দল তৈরির দিকে নজর দেন। যে কারণে আওয়ামী লীগে অনেক সংযোজন ও বিয়োজন তিনি করছেন। আর এটা করতে পেরেছেন বলেই আজ তিনি তার আওয়ামী লীগ নিয়ে এগারো বছর টানা ক্ষমতায় থেকে দেশকে এশিয়ার রাজনীতিতে ও অর্থনীতিতে গুরুত্বপূর্ণ অবস্থানে নিয়ে এসেছেন।


তাই এবারের সম্মেলনে প্রাথমিকভাবে দুটি বিষয় সামনে আসে; এক, এবারের আওয়ামী লীগের নেতৃত্বে যারা আসবেন তাদেরকে শেখ হাসিনার নেতৃত্বে এশিয়ার রাজনীতিতে গুরুত্বপূর্ণ ভূমিকা পালন করতে হবে। দুই, তাদেরকে প্রায় বিশ কোটি মানুষের নেতৃত্ব দিতে হবে। অর্থাৎ তাদেরকে এমন একটি জনসংখ্যার নেতৃত্ব দিতে হবে যার সংখ্যা আমেরিকার জনসংখ্যা থেকে মাত্র ১২ কোটি কম। অর্থাৎ আমেরিকার তিন ভাগের দুই ভাগ জনসংখ্যাকে তাদের নেতৃত্ব দিতে হবে। তাই আওয়ামী লীগ যে সময়ে তাদের সম্মেলনের প্রস্তুতি নিচ্ছে এখন তাদেরকে সবথেকে গুরুত্ব দিতে হবে এই দুটি বিষয়কে। অর্থাৎ কীভাবে ও কাদেরকে নিয়ে নেতৃত্ব সাজানো যায় যারা আগামী এশিয়ার এই অর্থনৈতিক বিকাশ ও রাজনীতির পরিবর্তনের সঙ্গে তাল মিলিয়ে দেশকে ও দেশের রাজনীতিকে এগিয়ে নিতে পারবেন। এক্ষেত্রে আওয়ামী লীগ নিশ্চয়ই অনেক কিছু চিন্তা-ভাবনা করছে। তবে তাদেরকে অবশ্যই এমন কিছু চিন্তা করতে হবে যাতে পার্টির ফরেন রিলেশান কমিটির ব্যপ্তি অনেক বড় হয়। এবং তাদের অধীনে বেশ কিছু ফাউন্ডেশান বা এনালিসিস কমিটি গড়ে ওঠে যার মাধ্যমে বিশ্ব রাজনীতির ও এশিয় রাজনীতির সঙ্গে তাল মিলিয়ে দল ও দেশকে এগিয়ে নিতে পারবে। অন্যদিকে আমেরিকার তিন ভাগের দুই ভাগ মানুষকে নেতৃত্ব দিতে গেলে পার্টি কাঠামোর ও নেতৃত্বের কাঠামোর অবশ্যই পরিবর্তন দরকার। এর আগের সম্মেলনগুলোতে শেখ হাসিনা অবশ্য সে পরিবর্তনের সূচনা করেছেন। তবে এবারের সম্মেলনে মনে হয় সেই পরিবর্তনের চূড়ান্ত রূপ দেবার একটা সময় এসে গেছে। আগে আওয়ামী লীগে একজন সাংগঠনিক সম্পাদক থাকতেন। জনসংখ্যা বাড়ার ফলে শেখ হাসিনা সেখানে চার বিভাগের চারজন সাংগঠনিক সম্পাদক দিয়েছেন। এখন মনে হয় এই পরিবর্তনের চূড়ান্ত পর্যায়ে যাবার সময় এসে গেছে। সে ক্ষেত্রে প্রথমেই চিন্তা করা যেতে পারে চার জন সাংগঠনিক সম্পাদক কেন্দ্রিয় না রেখে আঞ্চলিক করা যায় কিনা? অর্থাৎ নির্দিষ্ট বিভাগ থেকেই নির্দিষ্ট বিভাগের সাংগঠনিক সম্পাদক। এবং তিনি বিভাগে বসবাসকারী হলে আরো ভালো হয়। অর্থাৎ আবাসিক সাংগঠনিক সম্পাদক। এরপরেই সময় এসেছে এই চিন্তা করার যে চারটি সেক্রেটারীর পদ সৃষ্টি করে তাদরে ওপরে একজন জেনারেল সেক্রেটারি নির্বাচন করা। আর চার জন সেক্রেটারীর আওতা বিভাগ অনুযায়ী ভাগ না করে নির্বাচনী আসনের মতো জনসংখ্যা অনুযায়ী ভাগ করে দেয়া যেতে পারে। তাহলে সকলের আওতায় সমান সংখ্যক জনগোষ্ঠী পড়বে। এবং সেখানে তাদের সাংগঠনিক কাজ ও রাজনৈতিক শিক্ষা প্রদানের কাজ করা অনেক সহজ হবে। এবং চার জন সেক্রেটারি যাতে ফুল টাইম হতে পারেন সেজন্য তাদের সে ধরনের ভাতা ও অফিসের ব্যবস্থা করার বিষয়টিও চিন্তা করা যেতে পারে। আর জেনারেল সেক্রেটারির ক্ষেত্রে বঙ্গবন্ধুর নির্দেশিত পথই অনুসরণ করা উচিত। এখানে দ্বিতীয় কোনো কিছু ভাবার কোনো সুযোগ নেই।


আওয়ামী লীগের মনে রাখা দরকার, দল হিসেবে তাদের কাজ শুধু তাদের দলকে রাষ্ট্র ক্ষমতায় নেয়া নয়। আওয়ামী লীগের কাজ একদিন যেমন ছিলো বাংলাদেশ সৃষ্টি। এখন তাদের কাজ হলো শিক্ষিত, উন্নত একটি জনগোষ্ঠীর দেশকে বিশ্বসভায় মাথা উঁচু করে দাঁড় করানো। অন্তত এ মুহূর্তে এশিয়ার অন্যতম উন্নত ও দক্ষ জনগোষ্ঠীর দেশ হিসেবে গড়ে তোলা। আর তরুণ প্রজম্মের কাঙ্ক্ষিত বাংলাদেশ বির্নিমাণের জন্যে আওয়ামী লীগের সাংগঠনিক কাঠামোর এ পরিবর্তন এনে এ প্রজম্মকে রাজনীতির প্রতি শ্রদ্ধাশীল করা এখন সময়ের দাবি।

More News

দেশকে সন্ত্রাস, জঙ্গীবাদ ও দুর্নীতিমুক্ত করে এগিয়ে নেয়ার দৃঢ় সংকল্প পুনর্ব্যক্ত করলেন প্রধানমন্ত্রী দেশকে সন্ত্রাস, জঙ্গীবাদ ও দুর্নীতিমুক্ত করে এগিয়ে নেয়ার দৃঢ় সংকল্প পুনর্ব্যক্ত করলেন প্রধানমন্ত্রী

প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা শান্তি-শৃঙ্খলা বজায় রাখার মাধ্যমে সন্ত্রাস, জঙ্গীবাদ এবং দুর্নীতি মুক্ত করে দেশকে আরও এগিয়ে নেয়ার লক্ষ্যে তার সংকল্প পুনর্ব্যক্ত করেছেন। তিনি বলেন, ‘আমরা সন্ত্রাস, জঙ্গীবাদ এবং দুর্নীতির হাত থেকে রক্ষা করে &#........ বিস্তারিত

রোহিঙ্গা জনগোষ্ঠীর সুরক্ষা নিশ্চিতে প্রয়োজনীয় পদক্ষেপ নিতে মিয়ানমারকে নির্দেশ দিয়েছে আইসিজে রোহিঙ্গা জনগোষ্ঠীর সুরক্ষা নিশ্চিতে প্রয়োজনীয় পদক্ষেপ নিতে মিয়ানমারকে নির্দেশ দিয়েছে আইসিজে

রোহিঙ্গা গণহত্যার মামলায় মিয়ানমারকে অভিযুক্ত করেছে আন্তর্জাতিক বিচার আদালত (আইসিজে)। বৃহস্পতিবার (২৩ জানুয়ারি) নেদারল্যান্ডসের দ্য হেগে দেওয়া অন্তর্বর্তীকালীন আদেশে মিয়ানমারকে ওই জনগোষ্ঠীর সুরক্ষা নিশ্চিতে প্রয়োজনীয় পদক্ষেপ........ বিস্তারিত

বসলো পদ্মাসেতুর ২২তম স্প্যান, দৃশ্যমান ৩৩০০ মিটার বসলো পদ্মাসেতুর ২২তম স্প্যান, দৃশ্যমান ৩৩০০ মিটার

বসানো হলো পদ্মাসেতুর ২২তম স্প্যান। এর মধ্য দিয়ে দৃশ্যমান সেতুর ৩ হাজার ৩শ’ মিটার। বৃহস্পতিবার ১১ টা ৩২ মিনিটে ১৫০ মিটার দৈর্ঘ্যের এই স্প্যান বসানোর কাজ শেষ হয়। সেতুর মাওয়া প্রান্তের ৫ ও ৬ নম্বর পিয়ারের উপর বসানো হলো এই ২২তম স্প্যান।


........ বিস্তারিত

হাঁচি-কাশির মাধ্যমে করোনাভাইরাস ছড়ায় হাঁচি-কাশির মাধ্যমে করোনাভাইরাস ছড়ায়

করোনাভাইরাস সংক্রমণের ফলে চীনসহ এশিয়ার কয়েকটি দেশে যে রোগ ছড়িয়ে পড়েছে - তাতে এ পর্যন্ত ৯ জনের মৃত্যু হয়েছে, সংক্রমিত হয়েছে অন্তত ৪৪০ জন।


কিন্তু এ ভাইরাসটির প্রকৃতি এবং কিভাবেই বা তা রোধ করা যেতে পারে - এ সম্পর্কে এখনো বিজ্ঞানীর........ বিস্তারিত

৮২৩৮ ঋণখেলাপীর তালিকা প্রকাশ ৮২৩৮ ঋণখেলাপীর তালিকা প্রকাশ

৮ হাজার ২৩৮টি ঋণখেলাপী প্রতিষ্ঠানের নাম জাতীয় সংসদে প্রকাশ করেছেন অর্থমন্ত্রী আ হ ম মুস্তফা কামাল। মন্ত্রী জানান, বাংলাদেশে কার্যরত সকল ব্যাংক ও আর্থিক প্রতিষ্ঠান হতে প্রাপ্ত সিআইবি ডাটাবেইজ অনুযায়ী এসব কোম্পানির খেলাপী ঋণের পরিম........ বিস্তারিত

দেশে আইনের শাসন প্রতিষ্ঠা হয়েছে: শেখ হাসিনা দেশে আইনের শাসন প্রতিষ্ঠা হয়েছে: শেখ হাসিনা

আইনের সংস্কার ও যথাযথ প্রয়োগ নিশ্চিত করার মাধ্যমে দেশে আইনের শাসন প্রতিষ্ঠায় সরকার কার্যক্রম হাতে নিয়েছে বলে জানিয়েছেন প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা।


তিনি বলেছেন, আইনের শাসন প্রতিষ্ঠায় সরকার অঙ্গীকারবদ্ধ। জনগণের জানমালের নিরাপত্ত&........ বিস্তারিত

শুক্রবার টুঙ্গিপাড়া যাচ্ছেন প্রধানমন্ত্রী শুক্রবার টুঙ্গিপাড়া যাচ্ছেন প্রধানমন্ত্রী

প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা ২৪ জানুয়ারি (শুক্রবার) গোপালগঞ্জের টুঙ্গিপাড়া আসছেন। এদিন তিনি জাতির পিতা বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের সমাধি সৌধে ফুল দিয়ে শ্রদ্ধা জানাবেন।


গোপালগঞ্জের জেলা প্রশাসকের কাছে পাঠানো প্রধানমন্ত্রীর প্রট&........ বিস্তারিত

ইমিগ্রেশন সেবাকে আন্তর্জাতিক মানসম্পন্ন করতে ই-পাসপোর্ট প্রদান করছি - প্রধানমন্ত্রী ইমিগ্রেশন সেবাকে আন্তর্জাতিক মানসম্পন্ন করতে ই-পাসপোর্ট প্রদান করছি - প্রধানমন্ত্রী

প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা বলেছেন, উন্নত বিশ্বের সঙ্গে তাল মিলিয়ে আমরাও পাসপোর্ট ও ইমিগ্রেশন সেবাকে যুগোপযোগী করতে ই-পাসপোর্ট প্রদান করছি। ই-পাসপোর্টের সঙ্গে ই-গেটও সংযোজিত হচ্ছে। ই-পাসপোর্ট ও ই-গেট সংযোজিত হলে ইমিগ্রেশন ও পাসপোর্ট সে&........ বিস্তারিত

উপজেলা পর্যায়ে ৩২৯টি টেকনিক্যাল স্কুল ও কলেজ স্থাপনসহ ৮টি প্রকল্প অনুমোদন উপজেলা পর্যায়ে ৩২৯টি টেকনিক্যাল স্কুল ও কলেজ স্থাপনসহ ৮টি প্রকল্প অনুমোদন

বিদেশে দক্ষণ জনশক্তি পাঠানো ও রেমিট্যান্স প্রবাহ বৃদ্ধির জন্য সারাদেশে উপজেলা পর্যায়ে ৩২৯টি টেকনিক্যাল স্কুল ও কলেজ স্থাপন করবে সরকার। এই কাজে ব্যয় হবে ২০ হাজার ৫২৫ কোটি ৬৯ লাখ টাকা।


‘উপজেলা পর্যায়ে ৩২৯টি টেকনিক্যাল স্কুল ও কলেজ স&........ বিস্তারিত

খসড়া তালিকা প্রকাশ, ভোটার ১০ কোটি ৯৬ লাখ খসড়া তালিকা প্রকাশ, ভোটার ১০ কোটি ৯৬ লাখ

সারাদেশে হালনাগাদ কার্যক্রমে তথ্য সংগ্রহের পর ভোটার তালিকা খসড়া প্রকাশ করলো নির্বাচন কমিশন (ইসি)। চূড়ান্ত তালিকা প্রকাশ করা হবে আগামী ১ মার্চ (রোববার)।


নির্বাচন ভবনের মিডিয়া সেন্টারে আয়োজিত এক সংবাদ সম্মেলনে এ তালিকা প্রকাশ করেন ইস........ বিস্তারিত

মঙ্গলবার থেকে কমতে পারে তাপমাত্রা, হতে পারে বৃষ্টি মঙ্গলবার থেকে কমতে পারে তাপমাত্রা, হতে পারে বৃষ্টি

গত তিনদিন ধরে সারাদেশে তাপমাত্রা কিছুটা বৃদ্ধি পেলেও আগামী মঙ্গলবার থেকে রাতের তাপমাত্রা কমতে পারে। রবিবার সকালে আবহাওয়াবিদ বজলুর রশিদ এ তথ্য জানান।


তিনি বলেন, গত তিন ধরে সারাদেশে তাপমাত্রা বৃদ্ধি পাচ্ছে। আজ পর্যন্ত তা অব্যাহত থা&#........ বিস্তারিত

২২ জানুয়ারি ই-পাসপোর্ট কার্যক্রমের উদ্বোধন ২২ জানুয়ারি ই-পাসপোর্ট কার্যক্রমের উদ্বোধন

২২ জানুয়ারি বুধবার ইলেকট্রনিকস পাসপোর্ট (-পাসপোর্ট) কার্যক্রমের উদ্বোধন করা হবে প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা বঙ্গবন্ধু আন্তর্জাতিক সম্মেলন কেন্দ্রে -পাসপোর্ট বিস্তারিত

২ ফেব্রুয়ারি থেকে অমর একুশে গ্রন্থমেলা শুরু ২ ফেব্রুয়ারি থেকে অমর একুশে গ্রন্থমেলা শুরু

এবারের অমর একুশে গ্রন্থমেলা ২ ফেব্রুয়ারি শুরু হবে। প্রতিবছর ১ ফেব্রুয়ারি গ্রন্থমেলা শুরু হয়। তবে এবছর ওইদিন ঢাকার দুই সিটি কর্পোরেশন নির্বাচন হওয়ার কারণে নির্দিষ্ট দিনে বইমেলা অনুষ্ঠিত হচ্ছে না। 


রোববার (১৯ ফেব্রুয়ারি) বাংলা একা........ বিস্তারিত

১ ফেব্রুয়ারির  পরিবর্তে ৩ ফেব্রুয়ারি শুরু হচ্ছে এসএসসি পরীক্ষা ১ ফেব্রুয়ারির পরিবর্তে ৩ ফেব্রুয়ারি শুরু হচ্ছে এসএসসি পরীক্ষা

২০২০ সালের এসএসসি ও সমমানের পরীক্ষা পূর্ব নির্ধারিত সময় ১ ফেব্রুয়ারির (শনিবার) পরিবর্তে ৩ ফেব্রুয়ারি (সোমবার) থেকে শুরু হবে বলে জানিয়েছে শিক্ষা মন্ত্রণালয়। রোববার নতুন সময়সূচি প্রকাশ করা হবে।


শিক্ষামন্ত্রী ডা. দীপু মনি সাংবাদিকদে&........ বিস্তারিত

ঢাকা সিটি ভোট ২ দিন পেছালো ঢাকা সিটি ভোট ২ দিন পেছালো

সরস্বতী পূজার্থীদের আন্দোলনের মুখে ঢাকার দুই সিটির ভোটের তারিখ পরিবর্তন করলো নির্বাচন কমিশন (ইসি)। এক্ষেত্রে ৩০ জানুয়ারির পরিবর্তে ১ ফেব্রুয়ারি (শনিবার) নির্ধারণ করা হয়েছে।


শনিবার (১৮ জানুয়ারি) বিকেল থেকে চার ঘণ্টার বেশি সময় ধরে বৈঠ........ বিস্তারিত

আরও ১০০ অর্থনৈতিক অঞ্চল হচ্ছে আরও ১০০ অর্থনৈতিক অঞ্চল হচ্ছে

উন্নত রাষ্ট্রের স্বপ্ন পূরণের রূপকল্প ;  দেশী-বিদেশী বিনিয়োগকারীদের আগ্রহ ;দ্রুত বিপুল কর্মসংস্থানের সুযোগ; অর্থনৈতিক প্রবৃদ্ধির গতি বৃদ্ধি


জনকণ্ঠ :: উন্নত রাষ্ট্রের স্বপ্ন পূরণে দ্বিতীয় ধাপে আরও এক শ’ বিশেষ অর্থনৈতিক অঞ্চল প্রতি........ বিস্তারিত

২৫ জানুয়ারী থেকে সব কোচিং সেন্টার এক মাস বন্ধ ২৫ জানুয়ারী থেকে সব কোচিং সেন্টার এক মাস বন্ধ

মাধ্যমিক ও সমমানের পরীক্ষা উপলক্ষে সব কোচিং সেন্টার এক মাস বন্ধ রাখার নির্দেশনা দিয়েছেন শিক্ষামন্ত্রী ডা. দীপু মনি। বৃহস্পতিবার সচিবালয়ে এক সংবাদ সম্মেলনে তিনি এ নির্দেশনা দেন।


শিক্ষামন্ত্রী বলেন, আগামী ১ ফেব্রুয়ারি থেকে মাধ্যম........ বিস্তারিত

বসলো ২১তম স্প্যান, দৃশ্যমান ৩১৫০ মিটার বসলো ২১তম স্প্যান, দৃশ্যমান ৩১৫০ মিটার

পদ্মাসেতুর ২১তম স্প্যান '৬-বি' সেতুর ৩২ ও ৩৩ নম্বর পিলারের উপর বসানোর মাধ্যমে দৃশ্যমান হলো ৩ হাজার ১৫০ মিটার (৩.১৫ কি.মি)।


দেশি-বিদেশি প্রকৌশলীদের চেষ্টায় সফলভাবেই স্প্যানটি বসানো সম্ভব হয়েছে। একের পর এক স্প্যান বসিয়ে এভাবেই স্বপ্নের........ বিস্তারিত

মুজিববর্ষ উপলক্ষে ১ কোটি গাছের চারা বিতরণ করবে পরিবেশ, বন ও জলবায়ু পরিবর্তন মন্ত্রনালয় মুজিববর্ষ উপলক্ষে ১ কোটি গাছের চারা বিতরণ করবে পরিবেশ, বন ও জলবায়ু পরিবর্তন মন্ত্রনালয়

পরিবেশ, বন ও জলবায়ু পরিবর্তন মন্ত্রী মো. শাহাব উদ্দিন এমপি বলেছেন, পরিবেশ দূষণ নিয়ন্ত্রণসহ আমাদের অস্তিত্ব রক্ষার স্বার্থে অধিক পরিমাণে বৃক্ষ রোপণ করা প্রয়োজন। এ লক্ষ্যে জাতির পিতার জন্মশতবর্ষ ‘মুজিববর্ষ’ উদযাপনের অংশ হিসেবে আগামী &#........ বিস্তারিত

আবুধাবি পৌঁছেছেন প্রধানমন্ত্রী আবুধাবি পৌঁছেছেন প্রধানমন্ত্রী

প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা সংযুক্ত আরব আমিরাতে (ইউএই) ‘আবুধাবি সাসটেইনেবল উইক’, ‘জায়েদ সাসটেইনেবল অ্যাওয়ার্ড সেরিমনি’ ও অন্যান্য কর্মসূচিতে অংশ নিতে তিন দিনের সরকারি সফরে আজ রাতে আবুধাবি পৌঁছেছেন।
বিমান বাংলাদেশ এয়ারলাইন্সের একটি........ বিস্তারিত

প্রধানমন্ত্রী আবুধাবি যাচ্ছেন আজ প্রধানমন্ত্রী আবুধাবি যাচ্ছেন আজ

‘আবুধাবি সাসটেইন্যাবিলিটি সপ্তাহে’ যোগ দিতে সরকারী সফরে সংযুক্ত আরব আমিরাত যাচ্ছেন প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা। রবিবার বিকেল পাঁচটায় বিমান বাংলাদেশ এয়ারলাইন্সের ‘বিজি-০২৭’ ভিভিআইপি ফ্লাইটে আবুধাবির উদ্দেশে হযরত শাহজালাল আন্তর্........ বিস্তারিত

মুজিব জন্মশতবার্ষিকীর ক্ষণগণনা উদ্বোধন করলেন প্রধানমন্ত্রী মুজিব জন্মশতবার্ষিকীর ক্ষণগণনা উদ্বোধন করলেন প্রধানমন্ত্রী

বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের জন্মশতবার্ষিকীর ক্ষণগণনা শুরু হয়েছে।  


আজ শুক্রবার বিকেলে রাজধানীর তেজগাঁওয়ের জাতীয় প্যারেড গ্রাউন্ডে জমকালো অনুষ্ঠানে ক্ষণগণনা উদ্বোধন করেন প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা। এর আগে মুজিববর্ষের লোগো উ........ বিস্তারিত

বঙ্গবন্ধুর স্বদেশ প্রত্যাবর্তন উপলক্ষ্যে আজ মসজিদে মসজিদে দোয়া বঙ্গবন্ধুর স্বদেশ প্রত্যাবর্তন উপলক্ষ্যে আজ মসজিদে মসজিদে দোয়া

জাতির জনক বঙ্গবন্ধুর শেখ মুজিবুর রহমানের ঐতিহাসিক স্বদেশ প্রত্যাবর্তন দিবস এবং জন্মশতবার্ষিকী উদযাপন উপলক্ষে শুক্রবার (১০ জানুয়ারি) বাদ জুমা সারাদেশের মসজিদে মিলাদ ও দোয়া অনুষ্ঠানের অনুরোধ করেছে ধর্ম মন্ত্রণালয়।


বৃহস্পতিবার (৯........ বিস্তারিত

বঙ্গবন্ধুর দেশে ফেরার দিনই মুজিব বর্ষের ক্ষণগণনা শুরু,  প্রতীকী উপস্থাপনা বঙ্গবন্ধুর দেশে ফেরার দিনই মুজিব বর্ষের ক্ষণগণনা শুরু, প্রতীকী উপস্থাপনা

জনকণ্ঠ :: আজ যেখানে পুরনো বিমানবন্দর, স্বদেশ প্রত্যাবর্তনের দিন সেখানেই প্রথম পা রেখেছিলেন বঙ্গবন্ধু। বাঙালীর মহান নেতা মুক্তিযুদ্ধের নয় মাস বন্দী ছিলেন পাকিস্তানের কারাগারে। চূড়ান্ত বিজয় অর্জনের কয়েকদিন পর ১০ জানুয়ারি দেশের মানু........ বিস্তারিত

বস্ত্র রপ্তানী বৃদ্ধির লক্ষ্যে পণ্যের বহুমুখীকরণের আহ্বান প্রধানমন্ত্রীর বস্ত্র রপ্তানী বৃদ্ধির লক্ষ্যে পণ্যের বহুমুখীকরণের আহ্বান প্রধানমন্ত্রীর

প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা বস্ত্রখাতের সঙ্গে সংশ্লিষ্ট উদ্যোক্তাদের রপ্তানি আয় বৃৃদ্ধির জাতীয় পতাকাবাহী সংস্থা বিমান বাংলাদেশ এয়ারলাইন্সের বহরে বিশ্বের সর্বাধুনিক প্রযুক্তিসম্বলি........ বিস্তারিত

বিমানবন্দরের নিরাপত্তা ব্যবস্থা মেনে চলার কঠোর নির্দেশ প্রধানমন্ত্রীর বিমানবন্দরের নিরাপত্তা ব্যবস্থা মেনে চলার কঠোর নির্দেশ প্রধানমন্ত্রীর

প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা বিমান পরিবহণের ক্ষেত্রে নিরাপত্তার ওপর গুরুত্বারোপ করে ভিআইপি এবং ভিভিআইপিসহ সকল বিমানযাত্রীকে বিমানবন্দরের নিরাপত্তা ব্যবস্থা মেনে চলার কঠোর নির্দেশনা প্রদান করেছেন।


তিনি বলেন, ‘যদি কেউ এক্ষেত্রে ব&#........ বিস্তারিত

উন্নয়নের মহাসড়কে দেশ : দ্রুত গতিতে বাস্তবায়ন হচ্ছে ১০ মেগা প্রকল্প উন্নয়নের মহাসড়কে দেশ : দ্রুত গতিতে বাস্তবায়ন হচ্ছে ১০ মেগা প্রকল্প

এক শ’ অর্থনৈতিক অঞ্চলের নির্মাণ কাজও এগিয়ে চলেছে এসব অঞ্চল ঘিরে: ২০৩০ সালের মধ্যে রীতিমতো শিল্প বিপ্লব ঘটবে; কর্মসংস্থান হবে কোটি মানুষের


 


জনকণ্ঠ ::  উন্নয়ন। সাধারণভাবে ব্যক্তির জন্য উন্নয়ন বলতে বাড়তি আয়-উপার্জন বোঝায়। দেশের ক্ষে&........ বিস্তারিত

দেশের স্বাধীনতা ও সার্বভৌমত্ব বজায় রাখতে বিমান বাহিনীর নবীন সৈনিকদের প্রতি প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার আহবান দেশের স্বাধীনতা ও সার্বভৌমত্ব বজায় রাখতে বিমান বাহিনীর নবীন সৈনিকদের প্রতি প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার আহবান

প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা দেশপ্রেম, দায়িত্ববোধ এবং শৃঙ্খলাকে সৈনিক জীবনের পাথেয় আখ্যায়িত করে বাংলাদেশ বিমান বাহিনীর নবীন সৈনিকদের দেশের স্বাধীনতা এবং সার্বভৌমত্ব রক্ষায় ব্রতী হওয়ার আহবান জানিয়েছেন।


প্রধানমন্ত্রী বলেন, ‘আজ থেক&........ বিস্তারিত

তেঁতুলিয়ায় তাপমাত্রা আরও কমে ৫.৭ ডিগ্রি তেঁতুলিয়ায় তাপমাত্রা আরও কমে ৫.৭ ডিগ্রি

দেশের উত্তরের প্রান্তিক জেলা পঞ্চগড়ে শৈত্যপ্রবাহে বিপর্যস্ত হয়ে পড়েছে জনজীবন। বৃহস্পতিবার সকাল ৯টায় দেশের সর্বনিম্ন তাপমাত্রা ৫ দশমিক ৭ ডিগ্রি সেলসিয়াস রেকর্ড করেছে তেঁতুলিয়া আবহাওয়া অফিস। সকাল ৬টায় প্রাথমিকভাবে ৬ দশমিক ৩ ডিগ্র........ বিস্তারিত

দেশের সর্বনিম্ন তাপমাত্রা তেঁতুলিয়ায়, ৬.২ ডিগ্রি দেশের সর্বনিম্ন তাপমাত্রা তেঁতুলিয়ায়, ৬.২ ডিগ্রি

সর্ব উত্তরের জেলা পঞ্চগড়ের তেঁতুলিয়ায় দেশের সর্বনিম্ন তাপমাত্রা দশমিক পদ্মা সেতুর ১৯তম স্প্যান বসানো হয়েছে আজ বুধবার আর এতে করেবিস্তারিত