ইতিহাসের বিরুদ্ধে যুদ্ধযাত্রা

ইতিহাসের বিরুদ্ধে যুদ্ধযাত্রা

আবদুল গাফ্ফার চৌধুরী :: বিজেপি সরকার ভারতে ইতিহাসের বিরুদ্ধে যুদ্ধযাত্রা করেছে। বিজেপি এর আগেও ক্ষমতায় এসেছিল। প্রধানমন্ত্রী হয়েছিলেন অটল বিহারী বাজপেয়ী। তিনি শিক্ষিত ও উদার নেতা ছিলেন। শিবসেনা ও আরএসএসের কবলমুক্ত করে বিজেপি সরকারকে একটি উদারনৈতিক সরকারে পরিণত করতে চেয়ে আরএসএস ও শিবসেনাদের রোষের মুখেও পড়েছিলেন।


বর্তমান প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদি কট্টরপন্থী। বাজপেয়ীর মতো উদারপন্থী নন। তিনি আমাদের খালেদা জিয়ার মতো স্বশিক্ষিত। গুজরাটে ১৩ বছর মুখ্যমন্ত্রীর পদে ছিলেন। ফলে তার রাজনৈতিক অভিজ্ঞতা প্রচুর। তবে বাজপেয়ীর মতো রাজনৈতিক দূরদর্শিতা কতটা আছে তা বলা মুশকিল।


বাজপেয়ী ও নরেন্দ্র মোদির মধ্যে আরও পার্থক্য আছে। বাজপেয়ী সাম্প্রদায়িক রাজনীতি করতেন, কিন্তু নরেন্দ্র মোদির মতো কট্টরপন্থী আরএসএসের সদস্য ছিলেন না। ফলে তার সরকারে কট্টরপন্থীদের প্রভাব ছিল কম। তার প্রধানমন্ত্রিত্বের শেষ দিকে তিনি পাকিস্তান থেকে শেরোয়ানি এনে পরতে শুরু করেছিলেন। সভামঞ্চে উঠে যুক্তকর নমস্কার দেয়ার বদলে নেহেরুর মতো হাত তুলে অভিবাদন দিতেন। অনেকে বলেন, বিজেপির প্রধানমন্ত্রী হলেও তিনি দ্বিতীয় নেহেরু হতে চেয়েছিলেন।


বিজেপির বর্তমান প্রধানমন্ত্রীর মধ্যে রাজনৈতিক দার্শনিকতা নেই। তার রাজনৈতিক চিন্তা-চেতনায় আধুনিক যুগের প্রভাব নেই। আছে পৌরাণিক হিন্দু ভারতের সঙ্কীর্ণতা। তিনি মূলত আরএসএস বা কট্টর হিন্দুত্ববাদী রাষ্ট্রীয় স্বয়ংসেবক সংঘের সদস্য ছিলেন। তার সরকারের কর্মকা-ে তাই রয়েছে আরএসএসের প্রচ- প্রভাব। আর এই প্রভাবের ফলে গান্ধী-নেহেরুর হাতে গড়া গণতান্ত্রিক অসাম্প্রদায়িক ভারতের আধুনিক ভাবমূর্তি এখন দিনে দিনে মলিন হতে চলেছে।


ভারতে মোদি সরকারের আমলে সংখ্যালঘু সম্প্রদায়Ñ বিশেষ করে নি¤œবর্ণের হিন্দু বা দলিত শ্রেণী, মুসলমান সম্প্রদায় এবং কোন কোন রাজ্যে খ্রীস্টান সম্প্রদায়ও নির্মমভাবে নির্যাতিত হচ্ছে। গো-রক্ষার নামে চলছে মুসলমানদের ওপর নিষ্ঠুর অত্যাচার। এই অত্যাচারের বিবরণ প্রকাশ করে কলকাতার স্টেটসম্যান (বাংলা সংস্করণ) পত্রিকায় একটি উপসম্পাদকীয়র হেডিং দেয়া হয়েছিল, ‘ভারতে মানুষের নিরাপত্তা নেই। আছে গরুর নিরাপত্তা’।


কিছুদিন আগে আরএসএস ও শিবসেনা ভারতে সংখ্যালঘুদের ধর্মান্তকরণ শুরু করেছিল। এখনও তা বন্ধ হয়নি। রাজপথে হাঁটতে গিয়ে হিন্দু-মুসলমান নির্বিশেষে কেউ জয়রাম স্লোগান না দিলে তাকে বেদম প্রহার করা হয়। স্কুল-কলেজের পাঠ্যপুস্তকে, এমনকি বিজ্ঞানের বইতে মনগড়া ও অসত্য তথ্য ঢোকানোর ফলে ভারতের বুদ্ধিজীবীরাই শঙ্কিত এবং তার প্রতিবাদ করেছেন। প্রধানমন্ত্রী মোদি পর্যন্ত প্রকাশ্যে দাবি করছেন, আণবিক অস্ত্র পৌরাণিক হিন্দুযুগে হিন্দুরা আবিষ্কার করেছিল এবং মনুষ্য দেহে কৃত্রিম অঙ্গপ্রত্যঙ্গ সংযোজন সেই আমলেই শুরু। প্রমাণ গণেশের শির কেটে হাতির মাথায় সংযোজন। এই একুশ শতকে এমন উদ্ভট কথা কেউ প্রকাশ্যে বলতে পারেন তা চিন্তা-ভাবনার অতীত।


বিজেপি ক্ষমতায় এসেই আধুনিক ভারতের রূপকারদের নাম ও স্মৃতি মুছে ফেলতে শুরু করে। ভারতের ডাকটিকেটে নেহেরু, ইন্দিরা গান্ধীসহ সেক্যুলার নেতা ও মনীষীদের ছবি এখন নেই। সেখানে শিবাজি, সাভারকর প্রমুখের ছবি এনে বসানো হয়েছে। ভারতের বুদ্ধিজীবীরা বলছেন, ডাকটিকেটে শিবাজি, সাভারকরের ছবি এনে বসানো হোক, কিন্তু নেহেরু, ইন্ধিরা গান্ধীর ছবি মুছে ফেলা হবে কেন? এটাতো ইতিহাস বিকৃতি।


এখন শুধু ইতিহাস বিকৃতি নয়, ইতিহাসের বিরুদ্ধেই যুদ্ধযাত্রা করেছে মোদি সরকার। ভারতের মুসলিম আমলের বিভিন্ন স্থানের নাম ঔরঙ্গাবাদ, আফজলনগর, ফতেহাবাদ ইত্যাদি নাম পরিবর্তনের সিদ্ধান্ত হয়েছে। কিছুকাল আগে হিন্দুত্ববাদীরা দাবি করেছিল দিল্লীর কুতুবমিনার এবং আগ্রার তাজমহলও প্রাচীনকালের হিন্দু রাজাদের দ্বারা তৈরি।


মোদি সরকার ক্ষমতায় আসার পর ভারতে বিদেশী পর্যটকদের দর্শনীয় স্থানের তালিকা থেকে তাজমহলের নাম বাদ দেয়া হয়েছিল। তাজমহল প্রতিবছর বিদেশী পর্যটকদের কাছ থেকে কত কোটি কোটি টাকার বৈদেশিক মুদ্রা অর্জন করে, এটা বোঝার পর মোদি সরকারের ভ্রম ভাঙ্গে। ধর্মান্ধতা, তা যে ধর্মেরই হোক, কী ভয়ঙ্কর ব্যাপার তা আমরা পাকিস্তান আমলে মুসলিম লীগের রাজত্বকালে দেখেছি।


তৎকালীন পূর্ব পাকিস্তানে ময়মনসিংহের নাম বদল করে রাখা হয়েছিল মোমেনশাহী। এভাবে নারায়ণগঞ্জ, চট্টগ্রামের, সীতাকু- ইত্যাদি স্থানের নামের মুসলমানিকরণ হয়েছিল। ঢাকার সিদ্ধেশ্বরীর নাম করার চেষ্টা হয়েছিল ইমামগঞ্জ। মুসলিম লীগের রাজাদের ইতিহাসের বিরুদ্ধে এই যুদ্ধযাত্রা সফল হয়নি। এই পুরনো নামগুলো তারা উচ্ছেদ করতে পারেনি। পুরনো নামগুলো আবার ফিরে এসেছে এবং মুসলিম লীগ শাসনের শোচনীয় পতন ঘটেছে।


ভারতে মোদি সরকার এখন দেশের গোটা ইতিহাসের বিরুদ্ধেই যুদ্ধ শুরু করেছে। সম্প্রতি এক রাজ্য সরকার সিদ্ধান্ত নিয়েছে তাদের স্কুল-কলেজে ইতিহাসের বই থেকে মহিশূরের অধিপতি টিপু সুলতানের নাম মুছে ফেলবে। এ জন্য তারা যুক্তি দেখিয়েছে টিপু সুলতান অত্যাচারী শাসক ছিলেন। টিপু সুলতানকে হত্যা করার পর বাংলার নবাব সিরাজের মতো ইংরেজেরা তার চরিত্রে যে কলঙ্ক ছড়িয়েছিল, সেগুলো মিথ্যা প্রমাণ হওয়া সত্ত্বেও রাজ্য সরকার ভারতের স্বাধীনতা রক্ষার অন্যতম বীরযোদ্ধা হিসেবে স্বীকৃত। ইতিহাসের কিংবদন্তি পুরুষ টিপু সুলতানের নাম ও কর্মকা- ইতিহাস থেকে মুছে ফেলতে চায়। কিন্তু পারবে কি?


কম্যুনিস্টরা রাশিয়ায় ক্ষমতায় বসার পর ঐতিহাসিক শহরগুলো যেমনÑ পিটারগ্রেড, পিটার্সবার্গ ইত্যাদির নাম লেনিনগ্রাড, স্ট্যালিনগ্রাড রেখেছিল। কম্যুনিস্ট শাসনের পতনের সঙ্গে সঙ্গে পুরনো নামগুলো ফিরে এসেছে। স্ট্যালিন ক্ষমতায় এসে সোভিয়েত ইউনিয়নের ইতিহাস বদলে ফেলে তার গৌরব গাথায় পূর্ণ করেন। তার মৃত্যুর সঙ্গে সঙ্গে কম্যুনিস্ট নেতারাই সেই ইতিহাস পুড়িয়ে ফেলে আবার প্রকৃত পূর্ব ইতিহাসে ফিরে যান। এ জন্যই রবীন্দ্রনাথ বলেছেন, ... দানবের মূঢ় অপব্যয়।


গ্রন্থিতে পারে না কভু ইতিহাসে শাশ্বত অধ্যায়।


মোদি সরকারও একদিন ক্ষমতা থেকে যাবে। তাদের মূঢ়তা ও ধর্মান্ধতা থেকেও ভারতের ইতিহাস মুক্ত হবে। কিন্তু তাদের শাসনে হিন্দুত্ববাদ প্রতিষ্ঠার নামে তারা যা করে গেল, তা শুধু গান্ধী-নেহেরুর হাতে গড়া আধুনিক ভারতেরই ক্ষতি করবে না; ভারতের তরুণ প্রজন্মের মধ্যেও অন্ধ বিশ্বাস ও গোঁড়ামি ঢুকিয়ে দিয়ে তাদের সর্বনাশ করে যাবে। এই সর্বনাশ থেকে ভারত কতদিনে মুক্ত হতে পারবে, তা বলা মুশকিল। আধুনিক গণতান্ত্রিক ভারত হিসেবে দেশটি বিশ্বসভায় যে নেতৃত্ব অর্জন করতে যাচ্ছিল, সেই নেতৃত্ব থেকে ভারত বঞ্চিত হবে। মিসরের ভূতপূর্ব প্রেসিডেন্ট নাসের ১৯৫৬ সালে সুয়েজ যুদ্ধের পর সিদ্ধান্ত নিয়েছিলেন মিসরের ইতিহাস গ্রন্থ থেকে ব্রিটেনের নাম বাদ দেবেন। তখন তার এক উপদেষ্টা তাকে বলেছিলেন, মিসরের ইতিহাস থেকে ব্রিটেনের নাম বাদ দেয়া হলে ব্রিটেনের কোন ক্ষতি হবে না। কেবল মিসরের স্কুল-কলেজের ছাত্ররাই মূর্খ হয়ে থাকবে। বিশ্বের ইতিহাস-ভূগোল সম্পর্কে প্রকৃত জ্ঞান অর্জন করবে না। নাসের তার সিদ্ধান্ত ত্যাগ করেছিলেন।


বিজেপির মোদি সরকার যে ভারত গড়তে চাইছে, তা বিশ্বের আধুনিক অগ্রসরমান উন্নত দেশগুলোর সমকক্ষ দেশ নয়। তারা গড়তে চাইছে অন্ধকার অতীতে মুখ ফেরানো একটি দেশ। আমার ধারণা, ভারতের সচেতন মানুষ তা মেনে নেবে না। আমেরিকার ট্রাম্পের মতো উগ্র জাতীয়তাবাদে নির্ভর করে মোদি বিশাল সংখ্যাগরিষ্ঠতা নিয়ে ক্ষমতায় এসেছেন। বিশ্বের বাস্তব অবস্থা হয়তো অনুধাবন করতে পারছেন না। তাই ইতিহাসের বিরুদ্ধে যুদ্ধযাত্রা করেছেন। কিন্তু ইতিহাসের প্রতিশোধ বড় ভয়ঙ্কর। আজ হোক কাল হোক মোদি সরকারকেও ইতিহাসের আদালতে আসামির কাঠগড়ায় দাঁড়াতে হবে।

More News

করোনাভাইরাস 'হয়তো কখনোই নির্মূল হবে না'- বিশ্ব স্বাস্থ্য সংস্থা করোনাভাইরাস 'হয়তো কখনোই নির্মূল হবে না'- বিশ্ব স্বাস্থ্য সংস্থা

বিশ্ব স্বাস্থ্য সংস্থা সতর্ক করেছে যে পৃথিবী থেকে নভেল করোনাভাইরাস 'হয়তো কখনোই নির্মূল হবে না।'


এই ভাইরাস কবে নির্মূল হবে, বুধবার সেবিষয়ে ধারণা প্রকাশ করার ব্যাপারেও সতর্ক করেছেন বিশ্ব স্বাস্থ্য সংস্থার ইমার্জেন্সি বিষয়ের পর........ বিস্তারিত

ঈদের ছুটিতে ২৪ ঘণ্টা কারফিউ থাকছে সৌদিতে ঈদের ছুটিতে ২৪ ঘণ্টা কারফিউ থাকছে সৌদিতে

প্রাণঘাতী করোনা ভাইরাসের বিস্তার ঠেকাতে ঈদুল ফিতরের পাঁচ দিন ছুটিতেও সৌদি বিস্তারিত

৩০ এপ্রিল : করোনায় বিশ্বব্যাপি দীর্ঘতর হচ্ছে আক্রান্ত ও মৃতের সংখ্যা, আক্রান্ত ৩২,২১,৬১৭ আর মৃত্যু ২,২৮,২৬৩ ৩০ এপ্রিল : করোনায় বিশ্বব্যাপি দীর্ঘতর হচ্ছে আক্রান্ত ও মৃতের সংখ্যা, আক্রান্ত ৩২,২১,৬১৭ আর মৃত্যু ২,২৮,২৬৩

প্রাণঘাতি ভাইরাস কোভিড-১৯ মহামারীতে লাশের সারি ক্রমশ দীর্ঘ থেকে দীর্ঘতর হচ্ছে। প্রতিদিন যোগ হচ্ছে হাজারো মানুষ। প্রতিদিন আক্রান্ত হচ্ছেন হাজারে হাজার। প্রাণহানি এরমধ্যে দাঁড়িয়েছে ২ লাখ ২৮ হাজার ছাড়িয়েছে।


বিশ্বব্যাপী করোনাভাই&........ বিস্তারিত

সীমিত এবং সংক্ষিপ্ত পরিসরে মাসজিদুল হারাম ও মাসজিদে নববীতে শুরু হচ্ছে তারাবিহ, সরাসরি প্রচার হবে টিভিতে সীমিত এবং সংক্ষিপ্ত পরিসরে মাসজিদুল হারাম ও মাসজিদে নববীতে শুরু হচ্ছে তারাবিহ, সরাসরি প্রচার হবে টিভিতে

সৌদি আরবে শুক্রবার (২৪ এপ্রিল) থেকে শুরু হচ্ছে পবিত্র মাহে রমজান। ফলে বৃহস্পতিবার (২৩ এপ্রিল) থেকে মক্কার পবিত্র মসজিদুল হারাম ও মদিনার মসজিদে নববিতে ইশার পরপরই শুরু হবে তারাবি।


তবে মহামারী করোনা পরিস্থিতির কারণে এবার এই দুই ........ বিস্তারিত

বিশ্বে করোনায় মৃতের সংখ্যা লাখ ছাড়ালো বিশ্বে করোনায় মৃতের সংখ্যা লাখ ছাড়ালো

বিশ্বজুড়ে প্রাণঘাতী করোনাভাইরাসের তাণ্ডব প্রবল হয়ে উঠেছে। কোনো কোনো দেশে নতুন আক্রান্তের সংখ্যা সামান্য কমলেও তাতে স্বস্তি ফিরছে না। কারণ দেশে দেশে দীর্ঘ হচ্ছে মৃত্যুর মিছিল। সংখ্যায় হচ্ছে নতুন নতুন রেকর্ড। ইতোমধ্যে বিশ্বে করোনা........ বিস্তারিত

করোনায় আক্রান্তের সংখ্যা ছাড়ালো ১০ লাখ করোনায় আক্রান্তের সংখ্যা ছাড়ালো ১০ লাখ

প্রাণঘাতী করোনা ভাইরাসে বিশ্বজুড়ে এ পর্যন্ত আক্রান্ত হয়েছেন ১০ লাখ ১৫ হাজার ৮৫০ জন। এদের মধ্যে মারা গেছেন ৫৩ হাজার ২১৬ জন মানুষ। সুস্থ হয়েছেন ২ লাখ ১ হাজার ৯৯১ জন ভুগছেন ৭ লাখ ৪৯ হাজার ৬৪৩ জন। জানি&#........ বিস্তারিত

মসজিদে নামাজ সাময়িক বন্ধ রাখা যাবে : আল আজহারের ফতোয়া মসজিদে নামাজ সাময়িক বন্ধ রাখা যাবে : আল আজহারের ফতোয়া

মসজিদ থেকেও প্রাণঘাতি করোনাভাইরাস ছড়িয়ে পড়ার ঝুঁকি থাকায় মসজিদে নামাজের জামাত ও জুমার নামাজ সাময়িকভাবে বন্ধ রাখা যাবে বলে মত দিয়েছেন মিসরের আল আজহার বিশ্ববিদ্যালয়ের ফতোয়া বোর্ড।


করোনাভাইরাস দাবানলের মতো ছড়িয়ে পড়ার প্রেক্ষিতে &........ বিস্তারিত

ব্রিটিশ প্রধানমন্ত্রী বরিস জনসন করোনায় আক্রান্ত ব্রিটিশ প্রধানমন্ত্রী বরিস জনসন করোনায় আক্রান্ত

করোনা ভাইরাসে আক্রান্ত হলেন ব্রিটিশ প্রধানমন্ত্রী বরিস জনসন। শুক্রবার (২৭ মার্চ) টুইটারে এক ভিডিওবার্তায় এখবর জানালেন তিনি নিজেই।


টুইটে বরিস জানান, সবশেষ ২৪ ঘণ্টায় তার করোনা আক্রান্ত হওয়ার মৃদু লক্ষণ ছিল। পরে টেস্ট করলে কোভিড-১৯ প&#........ বিস্তারিত

৭১ বছর বয়সী প্রিন্স চার্লস করোনায় আক্রান্ত ৭১ বছর বয়সী প্রিন্স চার্লস করোনায় আক্রান্ত

ব্রিটিশ রাজ পরিবারে প্রিন্স চার্লসের শরীরে মিলল করোনা ভাইরাস। এএফপি জানায়, প্রিন্স চার্লস করোনা ভাইরাসে আক্রান্ত হয়েছেন। বর্তমানে তিনি সেলফ আইসোলেশনে স্কটল্যান্ডে রয়েছেন।


রাণী এলিজাবেথের পুত্র প্রিন্স চার্লস সম্পর্কে ক্লারে&#........ বিস্তারিত

আজ মধ্যরাত থেকে ২১ দিনের লকডাউনে ভারত, ঘোষণা মোদির আজ মধ্যরাত থেকে ২১ দিনের লকডাউনে ভারত, ঘোষণা মোদির

ভারত জুড়ে নোভেল করোনাভাইরাসে আক্রান্তের সংখ্যা ৫০০ ছাড়িয়েছে। তার জেরে এ বার সারা দেশে আগামী তিন সপ্তাহের জন্য লকডাউন ঘোষণা করলেন সে দেশের প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদী। মঙ্গলবার মধ্যরাত থেকে ১৫ এপ্রিল পর্যন্ত এই লকডাউন জারি থাকবে........ বিস্তারিত

করোনা মোকাবেলায় মসজিদুল হারাম ও নববী ছাড়া সৌদি আরবে সব মসজিদে নামাজ স্থগিত করোনা মোকাবেলায় মসজিদুল হারাম ও নববী ছাড়া সৌদি আরবে সব মসজিদে নামাজ স্থগিত

করোনা ভাইরাস মোকাবিলায় সৌদি আরবে মসজিদে হারাম ও মসজিদে নববী ছাড়া সব মসজিদে নামাজ স্থগিত করেছে দেশটি। এই প্রাণঘাতী ভাইরাসের বিস্তার ঠেকানোর অংশ হিসেবে সারাদেশের সব মসজিদের প্রধান জামাত ও শুক্রবারের জুমার নামাজ স্থগিত করে রিয়াদ। সংয........ বিস্তারিত

দেশে নতুন আক্রান্ত ২, করোনা ছড়ালো ১৪৯ দেশে, মৃতের সংখ্যা বেড়ে ৫৮১৪ দেশে নতুন আক্রান্ত ২, করোনা ছড়ালো ১৪৯ দেশে, মৃতের সংখ্যা বেড়ে ৫৮১৪

দেশে নতুন করে আরও দুই বাংলাদেশির শরীরে করোনা ভাইরাস পাওয়া গেছে। এদের একজন ইতালি ও অন্যজন জার্মানী থেকে এসেছেন।


শনিবার (১৪ মার্চ) রাতে রাষ্ট্রীয় অতিথি ভবন পদ্মায় এক সংবাদ সম্মেলনে একথা জানিয়েছেন স্বাস্থ্যমন্ত্রী জাহিদ মালেক। 


তù........ বিস্তারিত

করোনা বিশ্ব মহামারী : বিশ্ব স্বাস্থ সংস্থা করোনা বিশ্ব মহামারী : বিশ্ব স্বাস্থ সংস্থা

চীনের উহান শহর থেকে চাড়িয়ে করোনা ভাইরাস এখন বিশ্বব্যাপি ছড়িয়ে পড়েছে। এরই মধ্যে বিশ্বের ১১৪ টির বেশি দেশে ছড়িয়েছে এই ভাইরাস। এই ভাইরাসের সংক্রমণ আরও কতটা ব্যাপকভাবে ছড়াতে পারে এবং কত মানুষ এতে আক্রান্ত হতে পারে তা নিয়ে চিন্তিত বিশেষজ্........ বিস্তারিত

গুজবে বিভ্রান্তি, করোনা থেকে মুক্তির আশায় মদ খেয়ে ইরানে ২৭ জনের মৃত্যু গুজবে বিভ্রান্তি, করোনা থেকে মুক্তির আশায় মদ খেয়ে ইরানে ২৭ জনের মৃত্যু

করোনা ভাইরাস থেকে রক্ষা পেতে মদপান করে ২৭ ইরানির মৃত্যু হয়েছে। এ ছাড়া হাসপাতালে ভর্তি আছেন আরও ২১৮ জন।


মিথানলের বিষক্রিয়ায় তাদের মৃত্যু হয়েছে বলে জানিয়েছে এবিসি নিউজ। সোমবার ইরানের বার্তা সংস্থা মেহের জানিয়েছে, দেশটির খুজেস্তা........ বিস্তারিত

৫৪টি দেশ ও অঞ্চলে ছড়িয়ে পড়েছে করোনা,  মৃতের সংখ্যা বেড়ে ২৯২২ ৫৪টি দেশ ও অঞ্চলে ছড়িয়ে পড়েছে করোনা, মৃতের সংখ্যা বেড়ে ২৯২২

বিশ্বজুড়ে নভেল করোনাভাইরাস সংক্রমণ বেড়েই চলেছে। আগের তুলনায় চীনে এতে আক্রান্ত ও মৃতের সংখ্যা কিছুটা কমলেও বিপরীত চিত্র বাইরের দেশে। এরই মধ্যে ইরান, ইতালি, দক্ষিণ কোরিয়ায় ভয়াবহ পরিস্থিতি সৃষ্টি হয়েছে। আতঙ্ক বাড়ছে অন্য দ&#........ বিস্তারিত

দিল্লি পৌঁছলো উহানে আটকে পড়া ২৩ বাংলাদেশিসহ ১১২ জন দিল্লি পৌঁছলো উহানে আটকে পড়া ২৩ বাংলাদেশিসহ ১১২ জন

করোনা ভাইরাসের উৎপত্তিস্থল চীনের হুবেই প্রদেশের উহান শহরে আটকে পড়া ২৩ বাংলাদেশিসহ ১১২ জনকে  ভারতের রাজধানী দিল্লিতে আনা হয়েছে। বৃহস্পতিবার ভারতীয় বিমানের একটি বিশেষ ফ্লাইটে করে তাদেরকে চীন থেকে দিল্লিতে আনা হয়। এমনটি নিশ্চিত করেছ........ বিস্তারিত

ইন্টারনেটের বিকল্প আবিষ্কার করল রাশিয়া ইন্টারনেটের বিকল্প আবিষ্কার করল রাশিয়া

বৈশ্বিক ইন্টারনেট ব্যবস্থা নিয়ন্ত্রণ করে যুক্তরাষ্ট্র। ফলে ক্ষেত্রটিতে তাদের কর্তৃত্ব সবচেয়ে বেশি। এই কর্তৃত্ব থেকে বেরিয়ে আসতে দীর্ঘদিন ধরে চেষ্টা চালিয়ে যাচ্ছে রাশিয়া ও চীন। অবশেষে সাফল্যের মুখ দেখল রাশিয়া।


ইন্টারনেটের বিক&........ বিস্তারিত

রাখাইনে গণহত্যা : আইসিজেতে বিচারের শুনানি শুরু রাখাইনে গণহত্যা : আইসিজেতে বিচারের শুনানি শুরু

সুচি সরকারের বিদ্বেষমূলক প্রচার রোহিঙ্গাদের ওপর নির্যাতন উস্কে দিয়েছে ; গুরুত্বপূর্ণ আলামত ধ্বংস করা হয়েছে; সেনাবাহিনী মানবতা বিরোধী অপরাধ করেছে; হেগে আদালতের বাইরে মিয়ানমারের বিরুদ্ধে বিক্ষোভ


 


জনকণ্ঠ :: রোহিঙ্গা গণহত্যার অভি........ বিস্তারিত

ইতিহাসের বিরুদ্ধে যুদ্ধযাত্রা ইতিহাসের বিরুদ্ধে যুদ্ধযাত্রা

আবদুল গাফ্ফার চৌধুরী :: বিজেপি সরকার ভারতে ইতিহাসের বিরুদ্ধে যুদ্ধযাত্রা করেছে। বিজেপি এর আগেও ক্ষমতায় এসেছিল। প্রধানমন্ত্রী হয়েছিলেন অটল বিহারী বাজপেয়ী। তিনি শিক্ষিত ও উদার নেতা ছিলেন। শিবসেনা ও আরএসএসের কবলমুক্ত করে বিজেপি সরকা........ বিস্তারিত

রোহিঙ্গা গণহত্যায় মিয়ানমারের বিরুদ্ধে আন্তর্জাতিক আদালতে গাম্বিয়ার মামলা রোহিঙ্গা গণহত্যায় মিয়ানমারের বিরুদ্ধে আন্তর্জাতিক আদালতে গাম্বিয়ার মামলা

রোহিঙ্গা গণহত্যার জন্য জাতিসংঘের সর্বোচ্চ আদালতে বিচারের মুখোমুখি হতে যাচ্ছে মিয়ানমার। নেদারল্যান্ডসের দি হেগের ‘দি ইন্টারন্যাশনাল কোর্ট অব জাস্টিস’ (আইসিজে)-এ মিয়ানমারের বিরুদ্ধে সোমবার এ মামলা করেছে ওআইসিভুক্ত দেশ গাম্ব........ বিস্তারিত

ভারতের তুলনায় বাংলাদেশের অর্থনীতি সঠিক পথে - অভিজিৎ ব্যানার্জি ভারতের তুলনায় বাংলাদেশের অর্থনীতি সঠিক পথে - অভিজিৎ ব্যানার্জি

নোবেল বিজয়ী অর্থনীতিবিদ অভিজি ব্যানার্জি বলেছেন, ভারতের তুলনায় বাংলাদেশের অর্থনীতি সঠিক পথে এগোচ্ছে। নয়াদিল্লি থেকে প্রকাশিত জাতীয় দৈনিক টাইমস অব ইন্ডিয়াকে দেও........ বিস্তারিত

এক বাঙালিসহ অর্থনীতিতে নোবেল পেলেন ৩ জন এক বাঙালিসহ অর্থনীতিতে নোবেল পেলেন ৩ জন

২০১৯ সালে অর্থনীতিতে নোবেল পেয়েছেন যৌথভাবে তিনজন। তারা হলেন- ভারতীয় নাগরিক অভিজিৎ বিনায়ক বন্দ্যোপাধ্যায়, ফরাসি নাগরিক এস্থার দুফলো এবং মার্কিন নাগরিক মাইকেল ক্রেমার।


বাংলাদেশ সময় সোমবার (১৪) বিকেল সাড়ে ৩টায় রয়্যাল সুইডিশ একাডে........ বিস্তারিত

রসায়নে নোবেল পেলেন ৩ বিজ্ঞানী রসায়নে নোবেল পেলেন ৩ বিজ্ঞানী

এ বছর রসায়নে যৌথভাবে নোবেল পুরস্কার পেয়েছেন তিন বিজ্ঞানী। তারা হলেন জন বি. গুডএনাফ, এম. স্ট্যানলি হুইটিংহাম ও আকিরা ইয়োশিনো। লিথিয়াম আয়ন ব্যাটারির উন্নয়নে বিশেষ অবদান রাখায় তাদের এ পুরস্কার দেওয়া হলো।


বুধবার (৯ অক্টোবর) সুইডেনের স্থù........ বিস্তারিত

পদার্থবিজ্ঞানে নোবেল পেলেন ৩ বিজ্ঞানী পদার্থবিজ্ঞানে নোবেল পেলেন ৩ বিজ্ঞানী

পদার্থবিজ্ঞানে যৌথভাবে নোবেল জয় করেছেন জেমস পিবলস, মিশেল মেয়র এবং দিদিয়ের কেলোজ। এর মধ্যে জেমস পিবলস পেয়েছেন পুরস্কারটির অর্ধেক। আর বাকি অর্ধেক পেয়েছেন মিশেল মেয়র এবং দিদিয়ের কেলোজ; অর্থাৎ চার ভাগের এক ভাগ করে।


মঙ্গলবার (০৮ অক্টোবর........ বিস্তারিত

আসামে চূড়ান্ত নাগরিকত্ব তালিকা থেকে বাদ পড়ল ১৯ লাখ আসামে চূড়ান্ত নাগরিকত্ব তালিকা থেকে বাদ পড়ল ১৯ লাখ

আসামের চূড়ান্ত নাগরিক তালিকা প্রকাশ করা হয়েছে। এই তালিকা থেকে বাদ পড়ছে ১৯ লাখের বেশি মানুষ। আজ শনিবার সকাল ১০ টায় বহু প্রতিক্ষীত এই তালিকা প্রকাশ করা হলো। এনআরসি সেবা কেন্দ্র ও সরকারি ওয়েবসাইটে প্রকাশ করা হয়েছে এই তালিকা। এনআরসির চূড়া........ বিস্তারিত

ধর্মীয় সম্প্রীতির ক্ষেত্রে বাংলাদেশ একটি উল্লেখযোগ্য নাম, সংখ্যালঘু নির্যাতনের বিষয়ে প্রিয়া সাহার অভিযোগ সঠিক নয়, : মার্কিন রাষ্ট্রদূত ধর্মীয় সম্প্রীতির ক্ষেত্রে বাংলাদেশ একটি উল্লেখযোগ্য নাম, সংখ্যালঘু নির্যাতনের বিষয়ে প্রিয়া সাহার অভিযোগ সঠিক নয়, : মার্কিন রাষ্ট্রদূত

যুক্তরাষ্ট্রের প্রেসিডেন্ট ডোনাল্ড ট্রাম্পের কাছে এক বাংলাদেশি সংখ্যালঘু নির্যাতন বিষয়ে যে তথ্য দিয়েছেন তা সঠিক বলে মনে করেন না ঢাকায় নিযুক্ত মার্কিন রাষ্ট্রদূত রবার্ট মিলার।


সৌদি আরবে সড়ক দুর্ঘটনায় নিহত বাংলাদেশিদের পরিচয় মিলেছে। দেশটির সাগরা এলাকায় মর্মান্তিক সড়ক দুর্ঘটনায় ১০ বাংলাদেশি নিহত হন। গুরুতর আহত হন আরও চারজন। বুধবার সকাল সাড়ে ৭টার দিকে এ ঘটনা ঘটে।


ইয়েমেনে সৌদি জোটের বিমান হামলায় বহু বেসামরিক মানুষ হতাহত হচ্ছে। তারা বাজার, বিয়েবাড়ি এমনকি মাছ ধরার নৌকায়ও বোমা ফেলছে;


আইন প্রয়োগের নামে ভ&#........ বিস্তারিত

কফি আনান আর নেই কফি আনান আর নেই

জাতিসংঘের সাবেক মহাসচিব কফি আনান আর নেই। ৮০ বছর বয়সে চিকিৎসাধীন অবস্থায় মারা গেছেন এই নোবেল জয়ী। অল্প কিছুদিন ধরে অসুস্থ হয়ে সুইজারল্যান্ডে ছিলেন তিনি। আন্তর্জাতিক কূটনীতিকদের সূত্রে জানিয়েছে বিবিসি।


এক বিবৃতিতে তার মৃত্যুর খ&#........ বিস্তারিত

ভারতের সাবেক প্রধানমন্ত্রী অটল বিহারি বাজপেয়ির মৃত্যু ভারতের সাবেক প্রধানমন্ত্রী অটল বিহারি বাজপেয়ির মৃত্যু

দিল্লির একটি হাসপাতালে চিকিৎসাধীন অবস্থায় মারা গেছেন ভারতের সাবেক প্রধানমন্ত্রী অটল বিহারি বাজপেয়ি।


 


চিকিৎসক আরতি ভিজ সংবাদমাধ্যমকে জানান, গত ৯ সপ্তাহ ধরে সাবেক প্রধানমন্ত্রী অটলবিহারী বাজপেয়ি হাসপাতালে ভর্তি রয়েছেন। দুর্&#........ বিস্তারিত