মানবিক দিক বিবেচনা করে সাজা ৬ মাস স্থগিত রেখে খালেদা জিয়াকে মুক্তি দিল সরকার

মানবিক দিক বিবেচনা করে সাজা ৬ মাস স্থগিত রেখে খালেদা জিয়াকে মুক্তি দিল সরকার

দীর্ঘ ২ বছর ১ মাস ১৭ দিন (৭৭৬ দিন) পর কারা হেফাজত থেকে মুক্তি পেলেন বিএনপি চেয়ারপারসন খালেদা জিয়া। করোনা পরিস্থিতিতে মানবিক দিক বিবেচনা করে সাজা স্থগিত রেখে খালেদা জিয়াকে শর্ত সাপেক্ষে ৬ মাসের জন্য মুক্তি দিয়েছে সরকার। জিয়া অরফানেজ ট্রাস্ট দূর্নীতি মামলায় বিচারিক আদালত ৫ বছরের জন্য খালেদা জিয়াকে সাজা দেয়, পরে আপিলে সাজা বাড়িয়ে ১০ বছর করে দেওয়া হয়। আর জিয়া চ্যারিটেবল মামলায় বিচারিক আদালত ৭ বছরের সাজা দেয়। এই মামলাটি এখন হাইকোর্টে আপীলে রয়েছে। বাকি ৩৪টি মামলায় জামিনে আছেন খালেদা জিয়া।


বুধবার (২৫ মার্চ) বিকেলে বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমান মেডিক্যাল বিশ্ববিদ্যালয় (বিএসএমএমইউ) থেকে তিনি মুক্তি পান। দুপুর ৩টা ৫ মিনিটের দিকে খালেদাকে আনুষ্ঠানিকভাবে মুক্তি দেওয়া হয়। 


বিএসএমএমইউ হাসপাতালে খালেদা জিয়ার ভাই শামীম ইস্কান্দার ও বিএনপির মহাসচিব মির্জা ফখরুল ইসলাম আলমগীর খালেদা জিয়াকে গ্রহণ করেন। এর আগে খালেদা জিয়ার রুমের ভেতরে যান ভাই শামীম ইস্কান্দার, ভাইয়ের স্ত্রী কানিজ ফাতেমা, ভাইয়ের ছেলে অভিক ইস্কান্দার, তারেক রহমানের স্ত্রীর বড় বোন শাহিনা জামান খান, মির্জা ফখরুল ইসলাম আলমগীর ও শামা ওবায়েদ। ৪টা ২০ মিনিটে তাকে গাড়িতে তোলা হয়। ৪টা ২৫ মিনিটে গাড়ি বের হয়ে গুলশানের পথে রওয়া হয়েছে। 


এসময় আরো উপস্থিত ছিলেন বিএনপির ভাইস চেয়ারম্যান ডা. এজেড এম জাহিদ হোসেন, আন্তর্জাতিক বিষয়ক সম্পাদক ও খালেদা


খালেদা জিয়ার নিজের গাড়িসহ প্রোটেকশনের একটি গাড়িতে নিরাপত্তা বাহিনী (সিএসএফ) চেয়ারপারসন সিকিউরিটি ফোর্স ও দুটি মাইক্রোবাস রয়েছে তার গাড়ি বহরে। এছাড়া দলীয় নেতাকর্মীদের গাড়ি রয়েছে।

এর আগে দুপুর আড়াইটার দিকে বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিব মেডিক্যাল বিশ্ববিদ্যালয়ে (বিএসএমএমইউ) খালেদা জিয়ার মুক্তির চিঠি নিয়ে যান  ঢাকা কেন্দ্রীয় কারাগারের জেল সুপার ইকবাল কবির চৌধুরী।


দীর্ঘ ২ বছর ১ মাস ১৭ দিন পর মুক্তি পেলেন সাবেক এই প্রধানমন্ত্রী। এর আগে মঙ্গলবার খালেদা জিয়ার সাজা স্থগিত করে তাকে ছয় মাসের জন্য মুক্তি দেওয়ার সিদ্ধান্ত নেয় সরকার।


গত বছর ১ এপ্রিল অসুস্থতার কারণে তাকে বিএসএমএমইউ হাসপাতালে ভর্তি করা হয়। এক প্রায় এক বছর কারা হেফাজতে তিনি সেখানে ভর্তি ছিলেন।২০১৮ সালের ৮ ফেব্রুয়ারি গুলশান অ্যাভিনিউয়ের বাসভবন ‘ফিরোজা’ থেকে পুরান ঢাকার নাজিম উদ্দিন রোডের পুরোনো কেন্দ্রীয় কারাগারে গিয়েছিলেন খালেদা জিয়া। সেখান থেকে গত বছর ১ এপ্রিল তাকে নিয়ে আসা হয় বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমান মেডিক্যাল বিশ্ববিদ্যালয় হাসপাতালে। দীর্ঘ ২ বছর ১ মাস ১৭ দিন পর আবার সেই ফিরোজায় উঠতে যাচ্ছেন বিএনপি চেয়ারপারসন খালেদা জিয়া।


 

More News

Warning: file_get_contents(http://www.sandwipnews24.com/temp/.php): failed to open stream: HTTP request failed! HTTP/1.1 404 Not Found in /home/sandwipnews/public_html/m/news_details.php on line 77

Warning: Invalid argument supplied for foreach() in /home/sandwipnews/public_html/m/news_details.php on line 79