মলনুপিরাভিরের পর ফাইজারের 'প্যাক্সলোভিড' ও দেশের বাজারে আসছে

মলনুপিরাভিরের পর ফাইজারের 'প্যাক্সলোভিড' ও দেশের বাজারে আসছে

করোনাভাইরাসে আক্রান্ত ব্যক্তির চিকিৎসায় মুখে খাওয়ার নতুন একটি ওষুধ নিয়ে বড় ধরনের আশাবাদ তৈরি হয়েছে। ওষুধটির নাম ‘প্যাক্সলোভিড’ । এটি ফাইজারের তৈরী। বাংলাদেশসহ নিম্ন ও নিম্ন-মধ্যম আয়ের ৯৫টি দেশে সরবরাহ করতে পারবে জেনেরিক ওষুধ প্রস্তুতকারকরা। আন্তর্জাতিক জনস্বাস্থ্য গোষ্ঠী মেডিসিন্স প্যাটেন্ট পুলের (এমপিপি) সঙ্গে লাইসেন্স ভাগাভাগির আওতায় দ্বিতীয় হিসেবে যুক্তরাষ্ট্রের কোম্পানিটি গতকাল এ ঘোষণা দেয়।

কোভিড-১৯ টিকার অন্যতম শীর্ষ প্রস্তুতকারক ফাইজার বলছে, পরীক্ষামূলক প্রয়োগে এই পিল মারাত্মক ঝুঁকিতে থাকা প্রাপ্তবয়ষ্ক রোগীদের হাসপাতালে ভর্তি বা মৃত্যুর সুযোগ ৮৯ শতাংশ পর্যন্ত কমাতে পারে বলে প্রমাণ মিলেছে। এইচআইভির জেনেরিক ওষুধ রিটোনাভিরের সঙ্গে যুক্ত করে ওষুধটি কোভিডের চিকিৎসায় ব্যবহার করা হবে।
কয়েক মাসের মধ্যে ফাইজারের ওষুধটির জেনেরিক সংস্করণ বাজারে পাওয়া যাবে। লাইসেন্স চুক্তির আওতায় থাকা এই ৯৫টি দেশে বিশ্বের প্রায় ৫৩ শতাংশ মানুষের বাস। এর মধ্যে নিম্ন ও নিম্ন-মধ্যম আয়ের দেশ ও সাব-সাহারা আফ্রিকার উচ্চ-মধ্যম-আয়ের দেশগুলো অন্তর্ভুক্ত। ফাইজার বলছে, প্রতিটি দেশের আয়ের ভিত্তিতে স্তরায়িত দর নির্ধারণী পদ্ধতি ব্যবহার করে তারা ওষুধটি বিক্রি করবে।

এর আগে উদ্ভাবিত মলনুপিরাভিরকে বিশেষজ্ঞরা করোনা মহামারি মোকাবেলায় মোড় পরিবর্তনকারী কিংবা গেমচেঞ্জার ড্রাগ হিসেবে দেখছেন। তারা বলছেন, এই ওষুধ পরিস্থিতি বদলাতে সাহায্য করবে। কোভিড চিকিৎসায় মলনুপিরাভির বিশ্বের প্রথম মুখে খাওয়ার ওষুধ। এটি ঘরে বসেই সাধারণ যেকোনো ট্যাবলেটের মতো খাওয়া যাবে। গবেষণায় দেখা গেছে, এই ওষুধটি খেলে রোগীর গুরুতর অসুস্থ হয়ে হাসপাতালে ভর্তি হওয়া কিংবা মৃত্যুর ঝুঁকি অর্ধেক কমে যায়।
কোভিড রোগীদের চিকিৎসায় এই ক্যাপসুল ব্যবহার নিশ্চিত করতে দেশের সব হাসপাতালে চিঠি দিয়েছে স্বাস্থ্য অধিদপ্তর। রোগীদের মৃদু ও মাঝারি ধরনের লক্ষণ থাকলে এই ওষুধ ব্যবহার করা যাবে। পাশাপাশি রোগীর বয়স ৬০ বছরের বেশি হলে, ডায়াবেটিস, উচ্চ রক্তচাপ, হৃদরোগ ও অন্যান্য কোমর্বিডিটি থাকলে চিকিৎসকের পরামর্শে মুখে খাওয়ার এই ওষুধ ব্যবহার করা যাবে। তবে গুরুতর অসুস্থ রোগীদের এই ওষুধ দিতে মানা করেছে। বিবিসি জানায়, যুক্তরাষ্ট্রের ওষুধ প্রস্তুতকারী প্রতিষ্ঠান মার্ক, শার্প অ্যান্ড ডোম এবং রিজব্যাক বায়োথেরাপিউটিকস এই ওষুধটি তৈরি করেছে। বাংলাদেশে ঔষধ প্রশাসন কর্তৃপক্ষ ঔষধটির জরুরি ব্যবহার, বিপণন ও উৎপাদনের অনুমোদন দেয়ার পর এরই মধ্যে ওষুধটি বাজারে নিয়ে এসেছে তিনটি ওষুধ উৎপাদনকারী প্রতিষ্ঠান।
স্বাস্থ্য অধিদপ্তরের অসংক্রামক রোগ নিয়ন্ত্রণ কর্মসূচির পরিচালক ও মেডিসিন বিশেষজ্ঞ অধ্যাপক মোহাম্মদ রোবেদ আমিন বলেন, শরীরের ভেতরে যখন করোনাভাইরাস প্রবেশ করে তখন তার অনেক কপি তৈরি করতে হয়। এই কপি করার মূল প্রক্রিয়ায় হস্তক্ষেপ করে মলনুপিরাভির। ড্রাগটি বিভিন্ন ধরনের ত্রুটি তৈরি করে, যাতে জিনগুলো বুঝতে না পারে যে সে কোন প্রোটিন তৈরি করবে। যখন বিভিন্ন প্রজন্মে এই ভাইরাস তৈরি হতে থাকে তখন ত্রুটির সংখ্যাও বাড়তে থাকে।
তিনি বলেন, ভাইরাসটি তখনও বুঝতে পারে না তার ভেতরে কী পরিমাণ ত্রুটি প্রবেশ করেছে। কিন্তু ভাইরাসটি মনে করে যে সে বুঝি তৈরি করেই যাচ্ছে। একটা সময় ভাইরাসটি নিষ্ক্রিয় হয়ে ধ্বংস হয়ে যায়। মলনুপিরাভিরের যে রাসায়নিক কাঠামো সেটা দেখতে ভাইরাসের কপি তৈরি করার টেম্পলেট বা নকশার মতো। এ কারণে সে এটাকে ঘুরিয়ে দিতে পারে।
কত দ্রুত কাজ করে : বিজ্ঞানীরা বলছেন, মলনুপিরাভিরের রাসায়নিক পদার্থগুলো দ্রুত রোগীর রক্তের ভেতরে গিয়ে ভাইরাসকে নির্মূল করার কাজ শুরু করে দিতে পারে। প্রাণীর ওপর চালানো পরীক্ষায় দেখা গেছে, ১২ ঘণ্টা পরেই এই ওষুধটিকে বেশ কার্যকর দেখায় এবং ২৪ ঘণ্টার মধ্যে এটি ভাইরাসকে শূন্য করে ফেলতে পারে।
মানুষের ওপর চালানো পরীক্ষায় দেখা গেছে, তিন দিন পর ভাইরাস অনেক কমে গেছে, কিন্তু ভাইরাসটি পুরোপুরি ধ্বংস হতে সময় লেগেছে পাঁচ দিন। আঠারো বছরের নিচে কারো ওপর এই ওষুধের কার্যকারিতা পরীক্ষা করে দেখা হয়নি। গর্ভবতী নারীকেও এই ওষুধটি দেওয়া হয়নি। ফলে তাদের শরীরে এটি কাজ করবে কিনা সেটা পরিষ্কার নয়।
রোবেদ আমিন বলেন, যারা বয়স্ক, যাদের অন্তত একটি রিস্ক ফ্যাক্টর ছিল, তাদের অসুস্থতা যখন মৃদু থেকে মাঝারি, তাদের শরীরে এই সময়ে ওষুধটি সবচেয়ে ভালো কাজ করে বলে পরীক্ষাগুলোতে দেখা গেছে। কিন্তু কেউ গুরুতর অসুস্থ হয়ে পড়লে তখন এই ওষুধটি কাজ করে না।
টিকার বিকল্প নয় : ডাক্তাররা বলছেন, কোভিড টিকা নেওয়া সত্ত্বেও কেউ করোনায় আক্রান্ত হলে তার উপসর্গ যদি মৃদু থেকে মাঝারি হয় তাহলে তারাও এই ওষুধটি সেবন করতে পারবেন। তবে চিকিৎসকরা এই ওষুধটিকে টিকার বিকল্প হিসেবে না দেখার বিষয়ে সতর্ক করে দিয়েছেন।

More News

মলনুপিরাভিরের পর ফাইজারের 'প্যাক্সলোভিড' ও দেশের বাজারে আসছে মলনুপিরাভিরের পর ফাইজারের 'প্যাক্সলোভিড' ও দেশের বাজারে আসছে

করোনাভাইরাসে আক্রান্ত ব্যক্তির চিকিৎসায় মুখে খাওয়ার নতুন একটি ওষুধ নিয়ে বড় ধরনের আশাবাদ তৈরি হয়েছে। ওষুধটির নাম ‘প্যাক্সলোভিড’ । এটি ফাইজারের তৈরী। বাংলাদেশসহ নিম্ন ও নিম্ন-মধ্যম আয়ের ৯৫টি দেশে সরবরাহ করতে পারবে জেনেরিক ওষুধ প্রস্তুতকারকরা। আন্তর্জাতিক জনস্বাস্থ্য গোষ্ঠী মেডিসিন্স প্যাটেন্ট পুলের (এমপিপি) সঙ্গে লাইসেন্স ভাগাভাগির আওতায় দ্বিতীয় হিসেবে যুক্তরাষ্ট্রের কোম্পানিটি গতকাল এ ঘোষণা দেয়।


কোভিড-১৯ টিকার অন্যতম শীর্ষ প্রস্তুতকারক ফাইজার বলছে, পরীক্ষামূলক প্রয়োগে এই পিল মারাত্মক ঝুঁকিত........ বিস্তারিত

ডেঙ্গু মোকাবিলায় বিশেষজ্ঞ পরামর্শ অনুসরণের আহ্বান ডেঙ্গু মোকাবিলায় বিশেষজ্ঞ পরামর্শ অনুসরণের আহ্বান

চিকিৎসা বিশেষজ্ঞরা ডেঙ্গু রোগে বিচলিত বা আতঙ্কিত না হয়ে নীচের পরামর্শগুলো অনুসরণ করার জন্য আহ্বান জানিয়েছেন। আজ এক তথ্য বিবরণীতে একথা জানানো হয়। পরামর্শগুলোর মধ্যে রয়েছে :
   বাড়িতে চিকিৎসা চলাকালীন সতর্কতা -
নীচের যেকোন একটি লক্ষণ দেখা দিলে অতিসত্বর হাসপাতালে যোগাযোগ করতে হবে :
*    জ্বর কমার প্রথম দিন রোগীর শারীরিক অবস্থার অবনতি
*    বার বার বমি/মুখে তরল খাবার খেতে না পারা
*    পেটে তীব্র ব্যথা
*    শরীর মুখ বেশি দুর্বল অথবা নিস্তেজ হয়ে পড়া/হঠাৎ করে অস্থিরতা বেড়ে যাওয়া
*    শরীরের তাপমাত্র........ বিস্তারিত

টিকা উৎপাদনের জন্য বাংলাদেশী অংশীদারদের সঙ্গে যৌথভাবে কাজ করছে চীনা প্রতিষ্ঠানগুলো টিকা উৎপাদনের জন্য বাংলাদেশী অংশীদারদের সঙ্গে যৌথভাবে কাজ করছে চীনা প্রতিষ্ঠানগুলো

ঢাকায় চীনা দূতাবাসের মিশন উপ-প্রধান (ডিসিএম) হুয়ালং ইয়ান আজ বলেছেন, চীনা টিকা উৎপাদন গবেষণা ও উন্নয়ন (আরএন্ডডি) কোম্পানিগুলো এখানে যৌথ উদ্যোগে চীনা টিকা উৎপাদনের জন্য বাংলাদেশী প্রতিষ্ঠানগুলোর সঙ্গে কাজ করছে।
তিনি আজ তার অফিসিয়াল ফেসবুক পেজে বলেন, চীনা টিকা গবেষণা ও উন্নয়ন কোম্পানিগুলো বাংলাদেশে ভবিষ্যতে যৌথ উদ্যোগে টিকা উৎপাদনের জন্য বাংলাদেশী অংশীদারদের সঙ্গে কাজ করছে।
হুয়ালং ইয়ান বলেন, চীন অনেক উন্নয়নশীল দেশের সঙ্গে যৌথ গবেষণা ও উন্নয়ন কর্মকা-ের পাশাপাশি সহযোগিতামূলক উৎপাদন চালিয়েছে এবং তৃতীয় পর্যায়ের ক্লিনিক........ বিস্তারিত

টিকার মিশ্র ডোজে বেশি সুরক্ষা: 'কম-কভ' টিকার মিশ্র ডোজে বেশি সুরক্ষা: 'কম-কভ'

প্রথম ও দ্বিতীয় ডোজ হিসেবে দুই ব্র্যান্ডের টিকা প্রয়োগ করা হলে করোনাভাইরাসের বিরুদ্ধে ভালো সুরক্ষা পাওয়া যেতে পারে বলে যুক্তরাজ্যের অক্সফোর্ড ভ্যাকসিন গ্রুপের এক গবেষণায় এ তথ্য উঠে এসেছে।

‘কম-কভ’ নামের এই  ট্রায়ালে ফাইজার কিংবা অ্যাস্ট্রাজেনেকার দুই ডোজ করে কিংবা একটির পর অন্যটির প্রয়োগ করে মহামারী নিয়ে আসা করোনা ভাইরাসের বিরুদ্ধে টিকার কার্যকারিতা দেখা হয়। প্রতিটি মিশ্রণেই ভালো ফল এসেছে, বিশেষ করে অ্যান্টিবডি তৈরিতে।


গবেষণার এই ফলে আশাবাদী হয়ে উঠেছেন বিশেষজ্ঞরা। তারা বলছেন, টিকা নিয়ে চাপ অনেকটাই কমি........ বিস্তারিত

টিকা নেওয়া কোভিড আক্রান্তদের গুরুতর অসুস্থতা ও  মৃত্যুঝুঁকি কম: সিভাসু টিকা নেওয়া কোভিড আক্রান্তদের গুরুতর অসুস্থতা ও মৃত্যুঝুঁকি কম: সিভাসু

চট্টগ্রামে অক্সফোর্ড-অ্যাস্ট্রজেনেকার টিকা কোভিশিল্ড গ্রহণকারীদের মধ্যে ভালো অ্যান্টিবডি গড়ে ওঠায় কোভিডে আক্রান্তের হার নমুনা পরীক্ষার বিবেচনায় খুবই কম। এমনকি টিকা গ্রহণের পর আক্রান্ত হলেও রোগীদের গুরুতর শ্বাসকষ্টে ভুগতে হয়নি কিংবা আইসিইউতে নেওয়ার মত জটিলতা দেখা দেয়নি বলে চট্টগ্রাম ভেটেরিনারি অ্যান্ড অ্যানিমেল সায়েন্সেস বিশ্ববিদ্যালয়- সিভাসু এর এক গবেষণায় দেখা গেছে।

অন্যদিকে টিকার দুই ডোজ গ্রহণকারীদের মধ্যে নমুনা পরীক্ষায় অংশগ্রহণকারীদের মধ্যে দশমিক ৪৯ শতাংশ করোনাভাইরাসে আক্রান্ত হলেও তাদের বড় ধরনের স্........ বিস্তারিত

দেশে অনুমোদন পেল মডার্নার টিকা দেশে অনুমোদন পেল মডার্নার টিকা

মার্কিন ওষুধ প্রস্তুতকারী প্রতিষ্ঠান বায়ো এনটেক কোম্পানির উদ্ভাবিত করোনা প্রতিরোধী টিকা দেশে জরুরী ব্যবহারে অনুমোদন দিয়েছে ঔষধ প্রশাসন অধিদফতর। এ নিয়ে দেশে করোনা প্রতিরোধী সাতটি টিকা জরুরী ব্যবহারে অনুমোদন পেল।


মঙ্গলবার রাতে ঔষধ প্রশাসন অধিদফতরের মহাপরিচালক (ডিজি) মেজর জেনারেল মোঃ মাহবুবুর রহমান স্বাক্ষরিত এক বিজ্ঞপ্তিতে এ তথ্য জানানো হয়েছে। জানা গেছে, মডার্না টিকা করোনার বিরুদ্ধে প্রায় ৯৫ শতাংশ কার্যকর। সংরক্ষণের জন্য মডার্নার টিকা অনেকটা স্বস্তিদায়ক। মডার্নার টিকা সংরক্ষণ করতে হবে মাইনাস ২০ ডিগ্রী সেলসি........ বিস্তারিত

এ্যাস্ট্রাজেনেকার টিকা নেয়া ৯৩ শতাংশের শরীরে এ্যান্টিবডি এ্যাস্ট্রাজেনেকার টিকা নেয়া ৯৩ শতাংশের শরীরে এ্যান্টিবডি

ঢাকা মেডিক্যাল কলেজ (ঢামেক) হাসপাতালের অক্সফোর্ড-এ্যাস্ট্রাজেনেকার টিকা নেয়া শিক্ষক, চিকিৎসক ও কর্মচারীদের মধ্যে ৯৩ শতাংশের শরীরে এ্যান্টিবডি পাওয়া গেছে। মেডিক্যাল কলেজ হাসপাতালের এক গবেষণায় এ তথ্য পাওয়া গেছে।


রবিবার গবেষণার ফলাফল প্রকাশ অনুষ্ঠানে এ তথ্য জানিয়েছে ঢামেক হাসপাতাল। ঢামেকের মাইক্রোবায়োলজি বিভাগের প্রধান অধ্যাপক ডাঃ এসএম সামসুজ্জামান ফলাফলটি তুলে ধরেন। তিনি এই গবেষণারটির নেতৃত্বে ছিলেন।


অধ্যাপক ডাঃ এসএম সামসুজ্জামান জানান, ঢাকা মেডিক্যাল কলেজের মাইক্রোবায়োলজি বিভাগ অক্সফোর্ড-এ্যাস্ট্রাজ........ বিস্তারিত

সংক্রমণ রোধে ৯০ ভাগ সুরক্ষা দিতে পারে মাস্ক সংক্রমণ রোধে ৯০ ভাগ সুরক্ষা দিতে পারে মাস্ক

করোনাভাইরাস সংক্রমণ যেভাবে বাড়ছে, তাতে মাস্কের বিকল্প নেই বলে সরকারের পক্ষ থেকে বারবারই বলা হচ্ছে বিশেষজ্ঞরা বলছেন, সংক্রমণ রোধে শতকরা ৯০ ভাগ সুরক্ষা দিতে পারে মাস্ক সাম্প্রতিক সময়ে মাস্ক ব্যবহারে উদাসীনতা ভয়াবহ পরিণতি ডেকে আনতে পারে বলে সতর্ক করেছে........ বিস্তারিত

ঢাকার ৩ বস্তির ৭১ শতাংশ বাসিন্দার দেহে করোনার অ্যান্টিবডি রয়েছে - আইসিডিডিআরবি ঢাকার ৩ বস্তির ৭১ শতাংশ বাসিন্দার দেহে করোনার অ্যান্টিবডি রয়েছে - আইসিডিডিআরবি

আইসিডিডিআর'বি বলছে, ঢাকা ও চট্টগ্রামের কয়েকটি নির্বাচিত বস্তি ও বস্তিসংলগ্ন এলাকায় সমীক্ষা চালিয়ে দেখা গেছে যে, ঢাকায় ৭১ শতাংশ এবং চট্টগ্রামে ৫৫ শতাংশ মানুষের দেহে করোনার অ্যান্টিবডি রয়েছে।


এর অর্থ হচ্ছে, নির্দিষ্ট এই এলাকাগুলোতে কী পরিমান মানুষ করোনাভাইরাসে আক্রান্ত হয়েছিলেন, সে সম্পর্কে একটা ধারণা মিলছে এই জরিপের ফলাফলে।


তবে এ তথ্য শুধুমাত্র যেখানে সমীক্ষা চালানো হয়েছে সেখানকার জন্য এবং যে সময়ে হয়েছে সে সময়ের জন্য প্রযোজ্য বলে বলছেন গবেষকরা।


ঢাকায় তিনটি বস্তি ও চট্টগ্রামে দুটি বস্তিতে এ........ বিস্তারিত

দ্বিতীয় দফায় টিকাদান শুরু দ্বিতীয় দফায় টিকাদান শুরু

পূর্ব ঘোষণা মোতাবেক রাজধানীসহ সারাদেশের হাসপাতালগুলোতে চীন সরকারের উপহারের সিনোফার্মের টিকা প্রদান কার্যক্রম শুরু হয়েছে। আজ শনিবার (১৯ জুন) সকাল থেকে প্রতি জেলায় অন্তত একটি কেন্দ্রে সিনোফার্মের টিকা দেওয়ার মধ্য দিয়ে দ্বিতীয় দফায় টিকাদান কর্মসূচি শুরু করে স্বাস্থ্য অধিদফতর।


বাংলাদেশ ইতিমধ্যে উপহার হিসেবে চীন থেকে ১১ লাখ ডোজ সিনোফার্মের টিকা এবং কোভ্যাক্স প্রকল্পের আওতায় এক লাখ ছয় হাজার ডোজ ফাইজারের টিকা পেয়েছে। ফাইজারের টিকা ঠিক কবে থেকে দেওয়া শুরু হবে, সে সম্পর্কে এখনো স্পষ্ট করে কিছু না জানা গেলেও পূর্ব........ বিস্তারিত

ব্যবস্থাপত্রে ওষুধের বাণিজ্যিক নাম লিখা নিষেধ থাকা সত্ত্বেও লিখছেন চিকিৎসকরা ব্যবস্থাপত্রে ওষুধের বাণিজ্যিক নাম লিখা নিষেধ থাকা সত্ত্বেও লিখছেন চিকিৎসকরা

মানুষের পাঁচটি মৌলিক চাহিদার মধ্যে অন্যতম চিকিৎসা অথচ গুরুত্বপূর্ণ চাহিদা থেকে সাধারণ মানুষকে বঞ্চিত করছে দেশের কিছু অসাধু চিকিৎসক, ওষুধ প্রস্ততকারক কোম্পানি এমনকি হাসপাতালও এদিকে দেশের ওষুধের বাজার নিয়ন্ত্রণ করছে শীর্ষ কয়েকটি ওষুধ কোম্পানি


এরা সহ অন্যান্যরা বি........ বিস্তারিত

ঢাকায় ৬৮% কোভিড রোগীই ডেল্টায় আক্রান্ত: আইসিডিডিআরবি ঢাকায় ৬৮% কোভিড রোগীই ডেল্টায় আক্রান্ত: আইসিডিডিআরবি

ঢাকায় যত কোভিড-১৯ রোগী এখন রয়েছে, তার দুই-তৃতীয়াংশের দেহেই ডেল্টা ভ্যারিয়েন্টের সংক্রমণ পেয়েছেন একদল গবেষক।

ভারতে উদ্ভূত করোনাভাইরাসের এ ধরনটি দ্রুত ছড়ায় বলে এটা একটা উদ্বেগের বিষয় বলে মনে করছেন সরকারি সংস্থা আইইডিসিআরের উপদেষ্টা ও সাবেক প্রধান বৈজ্ঞানিক কর্মকর্তা ডা. মুশতাক হোসেন।


গত মে মাসের শেষ এবং জুন মাসের প্রথম সপ্তাহে ঢাকায় করোনাভাইরাস আক্রান্ত ৬০ জনের নমুনার জেনোম সিকোয়েন্স বিশ্লেষণ করে ৬৮ শতাংশের দেহে ডেল্টার সংক্রমণ পেয়েছে আইসিডিডিআর,বি।


আইসিডিডিআর,বির মিডিয়া ম্যানেজার এ কে এম তারিফুল ইসলাম........ বিস্তারিত

মানবদেহে বঙ্গভ্যাক্স ট্রায়ালের নীতিগত অনুমোদন মানবদেহে বঙ্গভ্যাক্স ট্রায়ালের নীতিগত অনুমোদন

শর্ত সাপেক্ষে দেশে তৈরী গ্লোব বায়োটেকের করোনা টিকা 'বঙ্গভ্যাক্স'-এর ট্রায়ালের নীতিগত অনুমোদনের সিদ্ধান্ত দিয়েছে বাংলাদেশ চিকিৎসা গবেষণা পরিষদ (বিএমআরসি) আজ বুধবার (১৬ জুন) সিদ্ধান্তের কথা জানায় সংস্থাটি


এর আগে চলতি বছরের ১৭ জানুয়ারি নিজেদের উৎপাদিত করোনাভাইরাসের টিকা 'বঙ্গভ্যাক........ বিস্তারিত

দেশে ভারতীয় ব্ল্যাক ফাঙ্গাস শনাক্ত দেশে ভারতীয় ব্ল্যাক ফাঙ্গাস শনাক্ত

করোনাভাইরাসে আক্রান্ত হওয়ার পর সুস্থ হয়েছেন দেশে এমন অন্তত দুজনের শরীরে ‘ব্ল্যাক ফাঙ্গাস’ শনাক্ত হয়েছে। সম্প্রতি ভারতে বিরল ছত্রাকজনিত এই রোগটি ছড়িয়ে পড়ার পর বাংলাদেশে এ নিয়ে উদ্বেগের মধ্যে দুজন আক্রান্ত হওয়ার কথা জানা গেল।


চলতি মাসে রাজধানীর বারডেম জেনারেল হাসপাতাল থেকে তাদের শরীরে ব্ল্যাক ফাঙ্গাস শনাক্ত করা হয়।


বারডেম হাসপাতালের কর্মকর্তারা জানান, গত ৮ মে ৪৫ বছর বয়সী এক রোগীর শরীরে মিউকরমাইকোসিস বা ব্ল্যাক ফাঙ্গাসের সংক্রমণ শনাক্ত হয়। এরপর গত ২৩ মে ৬০ বছর বয়সী আরেক জনের শরীরেও ছাত্রাকজনিত রোগটি শনাক্ত ........ বিস্তারিত

নতুন দুশ্চিন্তা 'ফাঙ্গাস', সতর্ক থাকার পরামর্শ বিশেষজ্ঞদের নতুন দুশ্চিন্তা 'ফাঙ্গাস', সতর্ক থাকার পরামর্শ বিশেষজ্ঞদের

করোনার পর নতুন দুশ্চিন্তা হিসেবে দেখা দিয়েছে ‘ফাঙ্গাস’। এত দিন শুধু ‘ব্ল্যাক ফাঙ্গাসের’ কথা বলা হলেও শুক্রবার থেকে আবির্ভাব ঘটেছে ‘হোয়াইট ফাঙ্গাসের’। করোনায় বিপর্যস্ত বিশ্বে নতুন ‘মহামারি’ ফাঙ্গাস জনমনে আতঙ্ক আরো বাড়িয়ে দিয়েছে। করোনা সংক্রমিতরাই এ রোগে বেশি আক্রান্ত হওয়ায় তাদের মধ্যে আতঙ্কের মাত্রাও বেশি। এরই মধ্যে প্রতিবেশী ভারতের ২৯টি রাজ্যে ব্ল্যাক ফাঙ্গাসকে মহামারি ঘোষণার সুপারিশ করেছে দেশটির স্বাস্থ্য কর্তৃপক্ষ। ফাঙ্গাস তাই আতঙ্ক ছড়িয়েছে বাংলাদেশেও। শুধু তাই নয়; এই রোগে এরই মধ্যে দুএকজন মারা গেছ........ বিস্তারিত

টিকা নিলেন বঙ্গবন্ধু কন্যা শেখ রেহানা টিকা নিলেন বঙ্গবন্ধু কন্যা শেখ রেহানা

জাতির পিতা বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের কনিষ্ঠ কন্যা শেখ রেহানা করোনাভাইরাসের টিকা নিয়েছেন।

প্রধানমন্ত্রীর প্রেস সচিব ইহসানুল করিম বুধবার দুপুরে বিডিনিউজ টোয়েন্টিফোর ডটকমকে এ তথ্য জানান।


আওয়ামী লীগের ফেইসবুক পেইজে শেখ রেহানার টিকা নেওয়ার সময়ের একটি ছবিও প্রকাশ করা হয়েছে। অনেকেই ছবিটি শেয়ার করেছেন, অভিনন্দন জানিয়েছেন। ফলে ছবিটি রীতিমত ভাইরাল হয়ে গেছে। 


কুর্মিটোলা জেনারেল হাসপাতালের একজন নার্সকে করোনাভাইরাসের টিকা দেওয়ার মধ্য দিয়ে গত ২৭ জানুয়ারি বাংলাদেশে বহু প্রতীক্ষিত টিকাদান কার্যক্রম শুরু হ........ বিস্তারিত

আগস্টে পেরিয়েছে করোনার পিক টাইম,  দ্বিতীয় ঢেউ নিয়ন্ত্রণে চলতেই হবে স্বাস্থ্যবিধি মেনে আগস্টে পেরিয়েছে করোনার পিক টাইম, দ্বিতীয় ঢেউ নিয়ন্ত্রণে চলতেই হবে স্বাস্থ্যবিধি মেনে

আগস্টে পার হয়ে গেছে করোনাভাইরাস সংক্রমণেরপিক টাইম এবার আশঙ্কা রোগে আক্রান্ত হয়ে দেশে মৃত্যু হয়েছে একজনের।


বৃহস্পতিবার (১৯ মার্চ) ........ বিস্তারিত

দেশে নতুন আক্রান্ত আরও ২ জনসহ মোট রোগী ১০ দেশে নতুন আক্রান্ত আরও ২ জনসহ মোট রোগী ১০

দেশে করোনা ভাইরাসে আক্রান্ত আরও ২ জন আক্রান্ত হয়েছেন। গত ২৪ ঘণ্টায় ৩৬ জনের নমুনা সংগ্রহের মাধ্যমে পরীক্ষা করার পর এ দুজনের শরীরে করোনার উপস্থিতি পাওয়া গেছে। এ নিয়ে দেশে করোনায় মোট আক্রান্তের সংখ্যা দাঁড়িয়েছে ১০ জনে।এদের মাঝে ২ জন সুস্........ বিস্তারিত

বিদেশ থেকে আসা ২৩১৪ জন হোম কোয়ারেন্টাইনে বিদেশ থেকে আসা ২৩১৪ জন হোম কোয়ারেন্টাইনে

সারাদেশে ২ হাজার ৩১৪ জন হোম কোয়ারেন্টাইনে রয়েছেন বলে জানিয়েছে রোগতত্ত্ব, রোগনিয়ন্ত্রণ ও গবেষণা ইনস্টিটিউট (আইইডিসিআর)।


রোববার (১৫ মার্চ) রাজধানীর মহাখালী........ বিস্তারিত